শেখ হাসিনাকে নিয়ে শিল্পকর্ম প্রদর্শনীতে মার্কিন রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশের ইতিহাসকে এগিয়ে নিতে শিল্পীদের প্রচেষ্টার প্রশংসা
শেখ হাসিনাকে নিয়ে শিল্পকর্ম প্রদর্শনীতে মার্কিন রাষ্ট্রদূত
‘শেখ হাসিনা: অন দ্য রাইট সাইড অব হিস্ট্রি’ শীর্ষক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী ঘুরে দেখছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার। ছবি : সংগৃহীত

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার শনিবার ‘শেখ হাসিনা: অন দ্য রাইট সাইড অব হিস্ট্রি’ শীর্ষক দুই মাসব্যাপী শিল্পকর্ম প্রদর্শনী পরিদর্শন করেছেন। এ সময় ‘অসাধারণ এ দেশের’ইতিহাসকে এগিয়ে নিতে শিল্পীদের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন তিনি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত মিলার বলেন, ‘উদযাপনের এটাই সঠিক সময় বলে আমার মনে হয়।’

কসমস গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ জামিল খান, ইন্ডিপেডেন্ট ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর বে অব বেঙ্গল স্টাডিজের পরিচালক, কসমস ফাউন্ডেশনের অনারারি অ্যাডভাইজার এমিরেটাস ও সাবেক কূটনীতিক তারিক আহমদ করিম এবং সংবাদ সংস্থা এপি-এর ব্যুরো চিফ জুলহাস আলম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে স্বাগত জানিয়ে মাসুদ জামিল বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র আমাদের সত্যিকারের পরীক্ষিত বন্ধু। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের সুসম্পর্ককে আমরা দীর্ঘস্থায়ী এবং কৌশলগত দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখে থাকি।’

শিল্পকর্ম প্রদর্শনীর বিষয়ে কসমস গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ জামিল খান বলেন, ‘এখানকার প্রতিটি শিল্পকর্ম নিজস্ব ভঙ্গিতে অনন্য এবং আকর্ষণীয়।’

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বছরব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে গ্যালারি কসমস সম্প্রতি কসমস আতেলিয়ার ৭১-এর সঙ্গে যৌথভাবে কসমস ফাউন্ডেশনের সহায়তায় বঙ্গবন্ধুর বড় মেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে একটি আর্ট ক্যাম্পের আয়োজন করে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘শিল্প প্রতিদিনকার বেঁচে থাকার জন্য অপরিহার্য নাও হতে পারে। তবে সমাজ ও সংস্কৃতির টিকে থাকার জন্য দীর্ঘমেয়াদে এটি আবশ্যক।’

গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আনুষ্ঠানিকভাবে এ শিল্প প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে আয়োজিত আর্ট ক্যাম্পে প্রখ্যাত শিল্পী অলকেশ ঘোষ, আহমেদ শামসুদ্দোহা, শেখ আফজাল, নাসির আলী মামুন, বিশ্বজিৎ গোস্বামী, রত্নেশ্বর সূত্রধর, রাসেল কান্তি, মনজুর রশিদ, সৌরভ চৌধুরী, মানিক বনিক, জয়ন্ত সরকার, আজমল হোসেন, ফিদা হোসেন, অমিত নন্দী, দিদারুল লিমন, তামান্না আফরোজ, ফাহিম চৌধুরী, মিসকাতুল আবির, প্রসূন হালদার, হাসুরা আক্তার রুমকি ও সুরভী আক্তার অংশ নেন। আর্ট ক্যাম্পে অংশ নিয়ে তাদের আঁকা শিল্পকর্মগুলো দিয়েই প্রদর্শনীটি করা হচ্ছে।

কসমস সেন্টারে প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত প্রদর্শনীটি অব্যাহত থাকবে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এখানে একসঙ্গে মাত্র ২০ জন দর্শনার্থী পরিদর্শনের সুযোগ পাবেন।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত তার ছেলে অ্যান্ড্রু মিলারকে নিয়ে কসমস সেন্টারে সংবাদ সংস্থা ইউএনবি-এর নিউজরুম এবং এপি-এর বাংলাদেশ কার্যালয়সহ কসমস গ্রুপের বিভিন্ন বিভাগ পরিদর্শন করেন।

কসমস গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ জামিল খান প্রদর্শনীতে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলারকে স্বাগত জানান।

এর আগে, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন এবং তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান এ শিল্প প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x