সবুজবাগে গৃহবধূকে দল বেঁধে ধর্ষণ

সবুজবাগে গৃহবধূকে দল বেঁধে ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে রাজধানীর সবুজবাগ এলাকায় এক গৃহবধূকে দল বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কর্মচারী সনজিব কুমার দাস ও তার সহযোগী আনিকাকে গ্রেফতার করেছে। তাদের পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

ডিএমপির সবুজবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাশেদ হাসান জানান, সোমবার গভীর রাতে মাদারটেক এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। কেরানীগঞ্জের বাসিন্দা এক নারীকে ব্যাংকে চাকরি দেওয়ার নাম করে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ মাদারটেকের একটি বাসায় ডেকে নিয়ে যান সনজিব দাস। তার সঙ্গে রাসেল, জামাল, আজিজুর রহমান ও আনিকা নামে এক নারী ঐ বাসায় ছিলেন। সেখানেই তাকে আটকে ধর্ষণ করা হয়।

এ ঘটনায় সনজিবকে প্রধান আসামি করে পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আনিকা ও সনজিবকে গ্রেফতার করে। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ধর্ষণের শিকার মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, পাঁচ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় তার। এরপর একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি পূর্বপরিচিত সনজিবের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ হয়। সে সময় কুশল বিনিময়ের এক পর্যায়ে তিনি তার সন্ধানে ব্যাংকে ভালো চাকরি থাকার কথা জানান। পরে চাকরি দেওয়ার কথা বলে মাদারটেকের ঐ বাসায় ডেকে নেন। এক পর্যায়ে সেখানে তাকে গণধর্ষণ করা হয়। সেখানে উপস্থিত নারী আনিকা এ কাজে তাদের সহায়তা করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে সনজিব ঐ নারীকে হত্যার হুমকি দেন।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x