মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফল পুনঃবিবেচনা না করলে আদালতে রিট

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফল পুনঃবিবেচনা না করলে আদালতে রিট
ছবি: ইত্তেফাক

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় অসংগতির অভিযোগ এনে ত্রুটিপূর্ণ ফল বাতিল ও সংশোধনপূর্বক নতুন মেধা তালিকা প্রণয়ন না করা হলে আদালতে রিট করবে শিক্ষার্থীরা।

আজ সোমবার (১৭ মে) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার অসংগতির শিকার পরিক্ষার্থী ও অভিভাবক অভিভাবকবৃন্দের প্রধান সমন্বয়ক এস.এম রাসেল সিদ্দিকী।

তিনি বলেন, সহস্রাধিক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর যে নম্বর প্রত্যাশা করেছিলো তার চেয়ে প্রাপ্ত ফলে রয়েছে ব্যাপক ব্যবধান।

এবিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে স্মরকলিপি দিয়েও কোনো সাড়া না মেলায় গত ১১ মে ২৪৮ শিক্ষার্থীর পক্ষে উচ্চ আদালতের দুইজন আইনজীবীর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে ভর্তি পরীক্ষার ফল স্থগিত বিষয়ে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন বলেও জানান প্রধান সম্মনয়ক রাসেল।

এসময় ৩ দফা দাবি তুলে ধরেন তিনি-

১. মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষার অসংগতির শিকার পরিক্ষার্থীদের উত্তরপত্রের স্বচ্ছতার সহিত পুনরায় যাচাই।

২. পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের উত্তরমালা স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

৩. ইতিমধ্যে যে ফল প্রকাশিত হয়েছে তা বাতিল পূর্বক পুনরায় ফল মেধাক্রমে প্রকাশ।

পরে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলের অসঙ্গতি নিয়ে কথা বলেন অভিভাবক আজিজুর নাহার। তিনি বলেন, মেয়ে রামিসা মালেহা হলিক্রস থেকে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন এ প্লাস নিয়ে উত্তীর্ণ হয়ে মেডিকেলে পরীক্ষা দিয়েছে। পরীক্ষায় ৬৩ পয়েন্ট আসলেও আসার কথা ছিলো ৭৫। পরীক্ষা পুনঃবিবেচনা করলে ৭৫ আসবে বলে জানান তিনি।

পরিক্ষার্থী মোসা. ফেরদৌসী মারিয়া বলেন, পরীক্ষা দিয়ে বাসায় এসে উত্তরপত্র মিলে দেখেছি যেখানে রিজাল্টে আসার কথা ৮০.২৫ লেখা আসছে ৬৭.২৫। তিনি বলেন, সত্যতার সঙ্গে রেজাল্ট পুনঃবিবেচনা করলে ৮০.২৫ রেজাল্ট আসবে।

এছাড়াও জেলা কোটাসহ অনেক বিষয় তুলে ধরা হয় সংবাদ সম্মেলনে। সংবাদ সম্মেলনের আগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনও করেন এসব শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা।

ইত্তেফাক/এমইউএ/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x