‘বাজেটে প্রতিবন্ধী মানুষকে উপেক্ষা করা হয়েছে’

‘বাজেটে প্রতিবন্ধী মানুষকে উপেক্ষা করা হয়েছে’
প্রেসক্লাবে প্রতিবন্ধীদের মানববন্ধন। ছবি: সংগৃহীত

এবারের ২০২১-২২ অর্থ বছরের বাজেটে সামাজিক সুরক্ষা খাতে প্রতিবন্ধী মানুষকে সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা। তারা বলেছেন আমরা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে একাধিক ওয়েবিনার, সুনির্দিষ্ট সুপারিশমালা দেয়া সত্ত্বেও তারা বিষয়টিকে আমলে নেয়নি। দৈনিক ২৫ টাকা হারে প্রতিবন্ধী মানুষকে ভাতা দেওয়া হয়। কোভিডকালীন এটা কোনো যৌক্তিক সহযোগিতা হতে পারে না বলে মন্তব্য করেন।

শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ১৩ টি সংগঠনের আয়োজিত মানববন্ধনে তারা এসব কথা বলেন। লাভলী বলেন, দৈনিক ২৫ টাকা হারের প্রতিবন্ধী মানুষকে কিভাবে ভাতা দেয়া হয়? এই করোনাকালীন সময়ে এটা কোন যৌক্তিক সহযোগিতা হতে পারে না। এইচডিডিএফ এর চেয়ারম্যান রাজীব শেখ বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের স্ব-কর্মসংস্থান বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশ ব্যাংকে ২০০ কোটি টাকার তহবিল গঠন করা হোক।

ডব্লিউডিডিএফ থেকে রওনক জাহান ঊষা বলেন, সরকারকে গুরুতর প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন ব্যক্তিগত সহায়তাকারীর ব্যবস্থা করতে হবে কারণ তারাও নাগরিক। এনজিডিও এর সভাপতি সুশান্ত, ডিপিও-দের কার্যক্রমকে বেগবান করতে বাজেটে প্রতিবছর প্রতিষ্ঠান ভেদে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অনুদান দেওয়ার ব্যবস্থা করার আহবান জানান। এনসিডিডব্লিউ এর সভাপতি নাসিমা আক্তার বলেন, গত দুবছর যাবত প্রতিবন্ধী মানুষের ভাতা বাড়ানো হচ্ছে না। অথচ সরকারের সামাজিক সুরক্ষা কৌশলপত্র অনুযায়ী ২০২০ সালের মধ্যে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির জন্য ভাতা ১৫০০ টাকা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, আমরা তার বাস্তবায়ন দেখতে চাই।

ডিসিএফ এর নির্বাহী পরিচালক নাসরিন জাহান বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি সংবেদনশীল মন্ত্রণালয় ভিত্তিক বাজেট বরাদ্দ চাই। প্রতিবন্ধী মানুষের দায়িত্ব শুধুমাত্র সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের হতে পারে না। আর সরকার চাইলেই মাত্র আরো ৬০০ কোটি টাকা বেশি বরাদ্দ করলে প্রতিবন্ধী মানুষের ভাতা ৭৫০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা করা সম্ভব। ডাব্লিউবিবি ট্রাষ্ট শানজিদা আক্তার বলেন, গত দু’বছর যাবৎ প্রতিবন্ধী ভাতার পরিমাণ বাড়ানোর বদলে ভাতা প্রাপ্তির আওতায়ই বাড়ানো হচ্ছে যা প্রতিবন্ধী মানুষের জীবনধারণে কোন প্রভাব ফেলছে না।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী শারমিন বলেন, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ভাতা পেলে তাদের শিক্ষা উপবৃত্তি দেয়া হবে না। কিন্তু এটা কেন হবে, প্রতিবন্ধী ভাতা জীবন ধারণের জন্যে, আর শিক্ষা উপবৃত্তি তার স্বনির্ভর হওয়ার পথের পাথেয়। কোনভাবেই প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপবৃত্তি বন্ধ করা যাবে না। সরকারি চাকরিতে প্রতিবন্ধী মানুষের কোটার সঠিক বাস্তবায়ন করার কথা তুলে ধরেন সম্মেলন ফাউন্ডেশন।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রায় দেড়শ প্রতিবন্ধী মানুষ মানববন্ধনে অংশ নেন। তারা অর্থমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পেয়ে সমাজকল্যাণ সচিবের কাছে তাদের ৭ দফা সুপারিশের কপি তুলে দেন। তারা আশা করছেন তাদের দাবিদাওয়ার কিছুটা হলেও সরকার এই বাজেটে বাস্তবায়নের জন্য আন্তরিকভাবে বিবেচনা করবেন।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x