বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭
৩০ °সে

বাঁকানো পা নিয়ে দুশ্চিন্তার দিন শেষ

বাঁকানো পা নিয়ে দুশ্চিন্তার দিন শেষ
বাঁকানো পা বা ক্লাবফুট

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সহযোগিতায় দ্য গ্লেনকো ফাউন্ডেশন পরিচালিত ‘ওয়াক ফর লাইফ’ প্রকল্পের উদ্যোগে গতকাল সোমবার বিশ্ব ক্লাবফুট দিবস উদযাপিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষ্যে প্রকল্পের আওতায় চিকিত্সাধীন ক্লাবফুট শিশু ও তাদের অভিভাবকদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বি ব্লকের সামনে বটতলা থেকে সকালে একটি সচেতনতামূলক বিশেষ র‌্যালি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে ডি ব্লকে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

বিশেষ র‌্যালিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নেতৃত্ব দেন বিএসএমএমইউ-এর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া। এছাড়া দ্য গ্লেনকো ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের প্রধান কার্যালয় থেকে সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান কলিন ক্যাম্পবেল ম্যাকফারলেন, বিএসএমএমইউ উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবু জাফর চৌধুরী, সহযোগী অধ্যাপক ডা. কৃষ্ণ প্রিয় দাশ, দ্য গ্লেনকো ফাউন্ডেশন ও ‘ওয়াক ফর লাইফ’-এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ রাজিয়া সুলতানাসহ সংস্থার অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া র‌্যালিতে অংশ নেওয়া শিশু ও অভিভাবকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ক্লাবফুট বা বাঁকানো পা চিকিত্সায় সম্পূর্ণ ভালো হয়। এ বিষয়ে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। বাঁকানো পায়ের চিকিত্সা করা হলে শিশুরা সুস্থ ও সুন্দর জীবনযাপন করতে পারে। গ্লেনকো ফাউন্ডেশনের ওয়াক ফর লাইফ-এর সহায়তায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগে এ মহতী সেবাটি অব্যাহত রাখা হবে।

দ্য গ্লেনকো ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালিত ওয়াক ফর লাইফ প্রকল্পটি ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরে যশোর জেলা সদর হাসপাতাল (বর্তমান যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল) থেকে পরীক্ষামূলকভাবে কার্যক্রম শুরু করে এবং পরবর্তীতে সাফল্য লাভ করলে বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় সারাদেশে প্রায় ২৯টি জেলায় সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ক্লিনিক স্থাপনের মাধ্যমে এ কার্যক্রম ব্যাপকভাবে সম্প্রসারিত হয়।

আরও পড়ুন: কুষ্টিয়ায় ৬ দিন ধরে নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থোপেডিক বিভাগের সার্বিক সহযোগিতায় বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবু জাফর চৌধুরী এবং সহযোগী অধ্যাপক ডা. কৃষ্ণ প্রিয় দাশের তত্ত্বাবধানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ১৪ মার্চ ওয়াক ফর লাইফের কার্যক্রম শুরু হয়। মুগুর পায়ের চিকিত্সা পদ্ধতি সম্পর্কে ডাক্তার, নার্স ও মেডিকেল সহকারীদের জন্য প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য ২০১৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও দ্য গ্লেনকো ফাউন্ডেশন (ওয়াক ফর লাইফ)-এর মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ২০০৯ সাল থেকে ১ জুন পর্যন্ত সমগ্র বাংলাদেশে ২৪ হাজার ৪০০ ক্লাবফুট-শিশুকে ‘ওয়াক ফর লাইফ’ প্রকল্পটি তাদের ক্লিনিকে চিকিত্সার আওতাভুক্ত করেছে এবং শুধু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১০ সাল থেকে ১ জুন পর্যন্ত ৭১৭ জন শিশুর ১১০৫টি ক্লাবফুট (মুগুর পা) চিকিত্সার আওতাভুক্ত করেছে। ২০১৬ সালের ১৯ নভেম্বর ভারতের নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত জমকালো ও বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে ‘দ্য গ্লেনকো ফাউন্ডেশন’-এর প্রকল্প ওয়াক ফর লাইফ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা ও ক্লাবফুট চিকিত্সায় বিশেষ অবদানের জন্য প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিএমজে পদক লাভ করেছে।

ইত্তেফাক/নূহু

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত