বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭
৩০ °সে

সাধ্যের মধ্যে মানসম্পন্ন খাবারের নিরাপদ ঠিকানা ‘এ্যান্ট রেস্টুরেন্ট’

সাধ্যের মধ্যে মানসম্পন্ন খাবারের নিরাপদ ঠিকানা ‘এ্যান্ট রেস্টুরেন্ট’
ছবি-সংগৃহীত

উচ্চবিত্তদের কাছে ‘রেস্টুরেন্ট’ শব্দটি নিত্যনৈমিত্তিক হলেও ঢাকা শহরের মতো ব্যয়বহুল শহরে মধ্যবিত্ত ও দরিদ্রদের কাছে তা বিলাসিতায় বলা যায়। আগেপরে ভেবে, দিনক্ষণ ঠিক করে প্রবেশ করতে হয় আলোআঁধারিতে ঘেরা শান্ত-নিবির সেই সব খাবারের দোকানে। তাও অতি উচ্চমূল্যের কারণে অর্ডার চার্টে চোখ বুলাতে হয় বারবার। আর খাবারের গুণগত-মান নিয়ে তো প্রশ্ন থাকেই। সেখানে ব্যতিক্রম এক চিত্র ‘এ্যান্ট রেস্টুরেন্ট’।

নিকুঞ্জ-২ এর ১ নম্বর রোডের ৩২ নম্বর বাসার নিচতলায় অবস্থিত ‘অ্যান্ট রেস্টুরেন্ট’ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সবধরনের গ্রাহকের চাহিদা মিটিয়ে আসছে সফলতার সঙ্গে। আবাসিক এলাকার এই রেস্টুরেন্টটি ভালো পরিবেশ ও মানসম্পন্ন খাবারে যেমন মুগ্ধ করেছে, তেমনি নিম্ন মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তের মানুষদের জন্যও খুলে দিয়েছে দুয়ার। ৫০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০ টাকার মধ্যে মিলবে নানান ধরনের খাবার। বাহারি আয়োজনের এই রেস্টুরেন্ট ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই এলাকায় বসবাসরত বিদেশি গ্রাহকদের কাছেও।

মেন্যু চার্ট অনুযায়ী, ৫০ টাকায় কফি ও ৭০ থেকে ৮০ টাকায় পাওয়া যায় বেশ কয়েক আইটেমের জুস। ১০০ টাকায় দুপুরের খাবার হিসেবে পাওয়া যায় কড়াই রাইস। এখানকার সবচেয়ে জনপ্রিয় আইটেম হাক্কা নুডলস মিলবে মাত্র ১৩০ টাকায়। বার্গারগুলোর দাম পড়বে ৭০ থেকে ১৮০ টাকার মধ্যে।

এ্যান্ট রেস্টুরেন্টের উদ্যোক্তা নাসিরুল আলম চৌধুরী বলেন, এখানে নিরাপদ ও হাইজেনিক খাবারের প্রতি আমি বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। ক্রেতারাও পছন্দ করছে। তাছাড়া এটা আমি সামাজিক দায়িত্বও মনে করি। এক কথায় বলতে পারি, ক্রেতারা প্রতারিত হবেন না। তাদের কষ্টার্জিত টাকার বিনিময় মূল্যের কথা মাথায় রেখেই আমরা ব্যবসা পরিচালনা করছি।

ইত্তেফাক/এএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত