মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবি, নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ১৮:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

  অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি সংবাদ সম্মেলন। ছবি: সংগৃহীত

আগামী ঈদ-উল-আযহার আগেই সরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের ন্যায় বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা, বাড়ি ভাড়া, অবসর সুবিধা বোর্ড ও কল্যাণ ট্রাস্টের জন্য ১০% কর্তনের প্রজ্ঞাপন বাতিল, মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)। রবিবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের তৃতীয় তলায় মাওলানা আকরাম খাঁ হলে এক সংবাদ সম্মেলন এ দাবি জানানো হয়। দাবি পূরণ না হলে নতুন কর্মসূচিরও ডাক দিয়েছে সংগঠনটি।

সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. কাওছার আলী শেখের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির (বিটিএ) সভাপতি অধ্যক্ষ মো. বজলুর রহমান মিয়া।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, একটি দেশের শিক্ষাব্যবস্থা যত উন্নত, সে দেশ ও জাতি তত উন্নত। আমরা একদিকে শিক্ষক-কর্মচারী হলেও অপরদিকে পিতা/মাতাও বটে। আমরা আমাদের সন্তানসহ এদেশের সকল সন্তানদের স্বল্প ব্যয়ে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে চাই। তাই মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবি শুধু শিক্ষক-কর্মচারীদের দাবির মধ্যে সীমাবদ্ধ নাই; এ দাবি এখন জন-দাবিতে পরিণত হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দাবি পূরণ না হলে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি।

আরো পড়ুন: চোখ দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, ফেঁসে গেলেন সেই অভিনেত্রী

কর্মসূচি অনুযায়ী ২৪ জুলাই ২০১৯ বুধবার সকাল ১১টায় সারাদেশে সকল ‘জেলা সদরে’ এবং কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকায় ‘জাতীয় প্রেস ক্লাব’ এর সামনে ‘প্রতীকী অনশন পালন’, ২৮ জুলাই (রবিবার) সকাল ১১টায় ‘অবসর সুবিধা বোর্ড ও ক্যাল্যাণট্রাস্ট অফিস ঘেরাও।

এরপরেও যদি শিক্ষক-কর্মচারীদের ন্যায্য দাবি মেনে নেয়া না হয় এবং শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন থেকে ১০% কর্তন করা হয় তবে সারাদেশের হতাশ ও বিক্ষুব্ধ শিক্ষক-কর্মচারীগণ কঠোর থেকে কঠোরতর কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হবেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা মণ্ডলীর অন্যতম সদস্য বাবু রঞ্জিত কুমার সাহা, সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ আবুল কাশেম, সহ-সভাপতিবৃন্দ সর্বজনাব আলী আসগর হাওলাদার, বেগম নুরুন্নাহার, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু জামিল মো. সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন, অর্থ সম্পাদক মোস্তফা জামান খান, দপ্তর সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, গ্রহন্থাগার সম্পাদক অশোক কান্তি গুহ, সহ দপ্তর সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক ফাহমিদা রহমান, সহ মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শাহানা বেগম, কেন্দ্রীয় সদস্য- আজম আলী খান, প্রবীর রঞ্জন, মনোরঞ্জন মণ্ডল প্রমুখ।

ইত্তেফাক/বিএএফ