ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২১ °সে


জঙ্গিবাদে টানতে ইন্টারনেটে আকর্ষণীয় প্যাকেজ: সিটিটিসি প্রধান

জঙ্গিবাদে টানতে ইন্টারনেটে আকর্ষণীয় প্যাকেজ: সিটিটিসি প্রধান
সিটিটিসি প্রধান মনিরুল ইসলাম। ছবি: সংগৃহীত

তরুণদের জঙ্গিবাদে টেনে আনতে ইন্টারনেটে আকর্ষণীয় প্যাকেজ ছাড়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, এখন যারা (জঙ্গি) গ্রেফতার হচ্ছে, তারা কেউ কেউ আগে থেকেই জড়িত ছিল, আবার কেউ কেউ নতুন করে র্যাডিকালাইজড হয়ে জঙ্গিবাদে জড়িয়েছে। গতকাল শনিবার ‘ঢাকা পিস টক’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মনিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, মানসিকভাবে দুর্বল তরুণরাই জঙ্গিবাদের দিকে ঝুঁকছে। সারাবিশ্বই এখন সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। তবে বাংলাদেশে ঝুঁকির মাত্রা ‘অত্যন্ত কম’।

ইউএসএআইডির সহায়তায় ‘ঢাকা পিস টক’ নামের একটি কর্মসূচির বিস্তারিত জানাতে সেন্টার ফর সোশ্যাল অ্যাডভোকেসি অ্যান্ড রিসার্চ ফাউন্ডেশন (সিসার্ফ) এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সিসার্ফর নির্বাহী পরিচালক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শবনম আজীম বলেন, ধর্মীয় জঙ্গিবাদ বিষয়টিকে সামনে রেখে সে বিষয়ে করণীয় ঠিক করাই তাদের কর্মসূচির লক্ষ্য। তিনি জানান, বিভিন্ন পেশার ৩৬ জনকে নিয়ে একটি প্যানেল তৈরি করে ১২টি আলোচনা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আগামীর করণীয় নির্ধারণ করা হবে। শবনম বলেন, তরুণ সম্প্রদায়ের মধ্যে ধর্মীয় উগ্রবাদ প্রতিরোধে জাতীয় নীতি প্রণয়ন, শিক্ষাব্যবস্থায় বা পাঠ্যসূচি পুনর্মূল্যায়ন, গণমাধ্যমের ভূমিকা, পরিবার সেই সঙ্গে নারীর ভূমিকা, উগ্রবাদে জড়িতদের সামাজিক পুনর্বাসন নিয়ে আলোচনা করবেন তারা।

জঙ্গিবাদ নির্মূলে কাজ চললেও ঝুঁকি এখনো রয়েছে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন জঙ্গিবিরোধী অভিযানে নেতৃত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম। ‘হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার পর থেকে জঙ্গিবাদ নির্মূলে অনেকেই বিভিন্ন পর্যায়ে কাজ করেছেন। পরে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড কমে যাওয়ার কারণে অনেকেই মনে করছেন, এ বিপদ কেটে গেছে। কিন্তু এ বিপদ কেটে যায়নি।’ তিনি বলেন, ‘ইন্টারনেটে আকর্ষণীয় প্যাকেজ দেখে মানুষের প্রতি দায়িত্ববোধহীন তরুণরাই জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ছে। এটা ১৫ থেকে ৩০ বছর বয়সসীমার মধ্যে বেশি। জঙ্গিবাদ নির্মূলে আগে বিচ্ছিন্নভাবে কাজ হলেও এখন সমন্বিতভাবে করতে হবে।’

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গবেষক, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, দক্ষ সাংবাদিকের সমন্বয়ে গড়ে ওঠা সিসার্ফ কৌশলগত চিন্তক, একাডেমিকদের প্ল্যাটফরম। ঢাকায় সিসর্ফ ১২টি গোলটেবিল বৈঠক আয়োজন করবে। একই সঙ্গে ১২টি আলাদা আলাদা গবেষণা হবে। প্রথমে সমাজের ৩৬ জন বিশিষ্ট নাগরিকের একটি প্যানেল তৈরি করা হবে। মতাদর্শিক সহিংসতা প্রতিরোধে পরিবার ও উন্নত অভিভাবকত্ব, শিক্ষাব্যবস্থা ও পাঠ্যসূচি পুনর্মূল্যায়নের মাধ্যমে সহিংস উগ্রবাদ প্রতিরোধ, তরুণ সম্প্রদায়ের মধ্যে উগ্রবাদ প্রতিরোধে জাতীয় নীতি প্রণয়ন, উগ্রবাদ প্রতিরোধে নারীর ভূমিকা, উগ্রবাদে জড়িত ব্যক্তিদের সামাজিক পুনর্বাসন ইত্যাদি বিষয়ে সেমিনারে আলোচনা হবে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন