১২ মে’র মধ্যে চীনের ‘উপহার ভ্যাকসিন’ দেশে আসবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

১২ মে’র মধ্যে চীনের ‘উপহার ভ্যাকসিন’ দেশে আসবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
চীনের সিনোফার্ম টিকা। ছবি: সংগৃহীত

চীনের উপহারের ৫ লাখ করোনার টিকা আগামী ১২ মে’র মধ্যে দেশে আসবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। বুধবার (৫ মে) সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘চীনের রাষ্ট্রদূত আমাদের বলেছেন, উপহারের পাঁচ লাখ ১২ তারিখের মধ্যে চলে আসবে।’

কবে নাগাদ চীন থেকে ভ্যাকসিন আসা শুরু করবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মোমেন বলেন, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কত টাকায় চাইনিজ ভ্যাকসিন কিনবে সেটা ঠিক করার পর চীন থেকে বাণিজ্যিকভাবে টিকা আসা শুরু করবে। তবে কবে আসবে এটা সঠিক আমি বলতে পারব না। এটা একটা ইমার্জেন্সি ইস্যু।’

গত কয়েকদিন আগে দেশে চীন ও রাশিয়ার ভ্যাকসিন উৎপাদনের অনুমোদন দেয় সরকার। এ প্রক্রিয়া সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘রাশিয়া ডকুমেন্ট পাঠিয়েছে, আমাদের রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে তারা তাগাদা দিচ্ছে। রাশিয়ার ডকুমেন্ট স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আছে। আমরা রাশিয়া এবং চায়নারটা যৌথভাবে উৎপাদন করতে চাই, তবে এটা সময় লাগবে; আজ চুক্তি হলো কাল হয়ে যাবে এমনটা না। তবে আমরা খুব দ্রুত পেতে চাই।’

রাশিয়া ও চায়নার সঙ্গে যৌথ ভ্যাকসিন উৎপাদনে বাংলাদেশের ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিগুলো সক্ষমতার মাধ্যমে দেশেই মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদন সম্ভব বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার সরবরাহ সংকটে টিকাদান কার্যক্রম নিয়ে জটিলতার মধ্যে দ্রুত রাশিয়া ও চীনের টিকার অনুমোদন দেওয়া হয় দেশে।

এর আগে সোমবার (৩ মে) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছিলেন, উপহার হিসেবে চীনের দেওয়া ৫ লাখ ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা ১০ মের মধ্যে বাংলাদেশে পৌঁছাতে পারে।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x