খুলনায় পাঁচ হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু

খুলনায় পাঁচ হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু
ফাইল ছবি

খুলনায় কোরবানির ঈদের পর আবারও করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে খুলনায়। খুলনার পাঁচটি হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৪জন ও উপসর্গে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এরমধ্যে খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে করোনা আক্রান্তে চারজন ও উপসর্গে চারজনসহ আটজন, বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চারজন, শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তিনজন, সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুজন ও খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে, খুলনাতে গতকাল রবিবার ১১ জন, শনিবার ৮ জন ও শুক্রবার ৭ জনের মৃত্যু হয়েছিলো।

খুলনা বিভাগে করোনায় আরও ৪৫ জনের মৃত্যু

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকালপার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় আটজনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে চারজন উপসর্গে মারা গেছে।

করোনায় মৃতরা হলেন- খুলনা মহানগরীর রায়পাড়া এলাকার ফজলুর রহমান (৭০), টুটপাড়ার সাহিদা বেগম (৬২), ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরের বজলুল (৬৫) ও একই এলাকার পাশপাতিয়া এলাকার আব্দুর রহমান (৪৬)। বর্তমানে এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১০৯ জন। এরমধ্যে রেড জোনে ৪২ জন, ইয়ালো জোনে ৩৪ জন ও আইসিইউতে ২০ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১০ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬ জন।

খুলনার ৪ হাসপাতালে আরও ১১ জনের মৃত্যু

গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন- খুলনার ডুমুরিয়ার পলাশ সরকার (৩৬), নগরীর টুটপাড়ার তরিকুল (৬৩), ধর্মসভা এলাকার স্বপ্না (৪২) ও দৌলতপুরের মাহাবুবা (৪২)। বর্তমানে এ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৯১ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৯ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮ জন।

কুষ্টিয়ায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১৯ জনের মৃত্যু

শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন- খুলনা মহানগরীর দৌলতপুরের পাবলা এলাকার তাহমিনা বেগম (৮৪), বাগেরহাটের ফকিরহাটের গাউস শেখ (৬৫) ও নড়াইলের কালিয়ার কলাগাতী এলাকার নয়ন ঘোষ (৩৫)। বর্তমানে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৩৬ জন। এরমধ্যে আইসিইউতে রয়েছে ১০ জন। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় কোন রোগী ভর্তি হয়নি। এছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন দুজন।

সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন- খুলনা মহানগরীর বাগমারা মেইন রোডের শিখা রানী রায় (৫৫) ও ডুমুরিয়ার থুকড়া শাহপুরের আফিয়া খানম (৩৫)। বর্তমানে এই হাসপাতালের ৯০ শয্যার করোনা ইউনিটে ৬৯ জন ভর্তি রয়েছেন। এরমধ্যে আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ৭ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৩ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১ জন।

দেশে একদিনে তৃতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের ৮০ শয্যার করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে করোনা ইউনিটে একজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তি হলেন- খুলনা মহানগরীর হাজী মুহসিন রোডের আবুল বাশার ফারাজী (৫৫)। বর্তমানে এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৩ জন। এরমধ্যে ১৭ জন পুরুষ ও ১৬ জন মহিলা। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন চারজন।

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x