সীতাকুণ্ডে খলিলের জামিন না মঞ্জুর, ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন

সীতাকুণ্ডে খলিলের জামিন না মঞ্জুর, ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন
সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাব, উপজেলা চেয়ারম্যান এবং প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতিকে নিয়ে ফেসবুকে মানহানীকর পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে আটক খলিল। ছবি: ইত্তেফাক

সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাব, উপজেলা চেয়ারম্যান এবং প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতিকে নিয়ে ফেসবুকে মানহানীকর পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে আটক খলিলের বিরুদ্ধে আইসিটি মামলার দুই আইও বৃহস্পতিবার আদালতে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছেন। অপরদিকে গত বুধবার আদালত তার জামিন নামমঞ্জুর করেন।

গত ৭ মে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম আল মামুন সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবের নতুন ভবনের কাজ পরিদর্শনে এসে গাইডওয়াল নির্মাণের জন্য সাত লাখ টাকা বরাদ্দের ঘোষণা দিলে ইব্রাহিম খলিল উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের পরিদর্শনের ছবিসহ কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা লিখে ফেসবুকে পোস্ট করেন। তাছাড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সমকাল প্রতিনিধি এম. সেকান্দর হোসাইনকে নিয়ে অত্যন্ত আপত্তিকর পোস্ট করেন খলিল। এতে ক্লাবের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রেসক্লাব কল্যাণ ট্রাষ্টের চেয়ারম্যান এম. হেদায়েত ও এম সেকান্দর হোসাইন বাদি হয়ে ইব্রাহিম খলিলের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে দুইটি মামলা দায়ের করে। এসব মামলায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর খলিলকে গ্রেপ্তার করে ফৌজদারহাট ফাঁড়ি পুলিশ।

গত বুধবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহমেদ খন্দকারের আদালতে খলিল জামিনের আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত জামিন নামঞ্জুর করেন।

মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই মো. হারুনুর রশিদ ও এসআই সাইফুল আলম বলেন, তাকে রিমান্ডে আনার জন্য আমরা ১০ দিনের আবেদন করেছি। রিমান্ড মঞ্জুর হলে তার অপকর্ম বিষয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে বলে আশা করছি।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত