জামিনের মেয়াদ শেষে আত্মসমর্পণ না করে ১২ মাস বাইরে

পাঁচ আসামিকে পুলিশে দিল হাইকোর্ট
জামিনের মেয়াদ শেষে আত্মসমর্পণ না করে ১২ মাস বাইরে
হাইকোর্ট। ছবি: সংগৃহীত

অর্থ পাচারের মামলায় উচ্চ আদালত থেকে চার সপ্তাহের আগাম জামিন নিয়েছিলেন পাঁচ আসামি। ঐ জামিনের মেয়াদ শেষে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশনা ছিল। কিন্তু আত্মসমর্পণের ঐ নির্দেশনা উপেক্ষা করে গত ১২ মাস প্রকাশ্যে ঘুরে বেরিয়ে আবারও হাইকোর্টে আগাম জামিন চান আসামিরা।

হাইকোর্ট জামিন না দিয়ে পাঁচ আসামিকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন। বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল সোমবার এই আদেশ দেন।

আদালত বলেন, আগাম জামিনের মেয়াদ শেষের পরেও কেন এতদিন ঘুরে বেড়িয়েছেন? আইন কি তাদের এই সুযোগ দিয়েছে। আমরা জামিন দিয়ে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছিলাম। কিন্তু সেই নির্দেশনা উপেক্ষা করে পুনরায় জামিন চাওয়া গুরুতর আদালত অবমাননা।

পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া পাঁচ আসামি হলেন: ফরিদপুরের মোফাজ্জেল হোসেন মোল্লা, মো. রাহাত হোসেন, আলাউদ্দিন মোল্লা ও রমজান আলী এবং পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার মো. সুমন। এ পাঁচ আসামিই এতদিন চট্টগ্রামে ছিলেন। হাইকোর্টের আদেশের পর গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় তাদেরকে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয় বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিনউদ্দিন মানিক। আদালতে আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট ফয়সল হাসান আরিফ শুনানি করেন।

প্রসঙ্গত, বিদেশে অর্থপাচার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রাজধানীর রমনা মডেল থানায় গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর এই পাঁচ আসামিসহ নয় জনের বিরুদ্ধে ঢাকার কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর দুটি মামলা করে। ঐ দুই মামলায় গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর তাদের চার সপ্তাহের আগাম জামিন দেয় হাইকোর্ট। একই সঙ্গে জামিনের মেয়াদ শেষে তাদের নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত