এমপি পাপুল পরিবারের অর্থপাচার: কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নথি তলব

এমপি পাপুল পরিবারের অর্থপাচার: কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নথি তলব
কাজী শহীদুল ইসলাম পাপুল এমপি [ফাইল ছবি]

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কুয়েতে কারাবন্দি শহিদ ইসলাম পাপুল, তার স্ত্রী সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি সেলিনা ইসলাম ও তাদের মেয়ে ওয়াফা ইসলামের অর্থপাচার নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-পরিচালক আরেফিন আহসান মিঞা স্বাক্ষরিত সমস্ত নথি তলব করেছেন হাইকোর্ট।

আজ মঙ্গলবার বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি সাহেদ নুর উদ্দিনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি ও আদেশের জন্যে আগামী ২৪ জানুয়ারি দিন ঠিক করেছেন আদালত। নথিতে আরেক তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক মশিউর রহমানের স্বাক্ষর নেই কেন তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন আদালত।

আদালতে আজ দুদকের পক্ষে শুনানি করেন মো. খুরশিদ আলম খান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

গতবছরের ১১ নভেম্বর লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাংসদ কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল এবং তাঁর স্ত্রী এমপি সেলিনা ইসলাম, শ্যালিকা জেসমিন প্রধান এবং মেয়ে ওয়াফা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

এজাহার থেকে জানা যায়, পাপুলের ব্যক্তিগত সহকারী মনির দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কাজের সন্ধানে কুয়েতে গমনেচ্ছু বিভিন্ন ভিকটিমের কাছ থেকে নগদ ও ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে জনপ্রতি ৫-৭ লাখ টাকা গ্রহণ করেছে। মনিরের ব্যাংক হিসাব পর্যালোচনা ও অন্যান্য তথ্য প্রমাণে দেখা যায়, মনিরের নিজ নামীয় রুপালী ব্যাংকের রাজারবাগ শাখায় ২০১৬-২০২০ সাল পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কুয়েত গমনেচ্ছু ভিকটিমদের কাছ থেকে মোট ৩৮ কোটি ২২ লাখ ৪০ হাজার ৫৬৭ টাকা জমা করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণরূপে এমপি পাপুল, তার শ্যালিকা জেসমিন প্রধান এবং কন্যা ওয়াফা ইসলামের নামে পরিচালিত ব্যক্তিগত ও প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ব্যাংক হিসাবে ট্রান্সফার ও উত্তোলন করা হয়েছে।

উল্লেখিত মেয়াদে মনিরের ব্যাংকের হিসাব থেকে জেসমিন প্রধানের এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের হাতিরপুল শাখার একাউন্টে বিভিন্ন সময়ে অনলাইন একাউন্ট-একাউন্ট ট্রান্সফারের মাধ্যমে ৩ কোটি ৪৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং চেকের মাধ্যমে আরও ৮ কোটি ৪১ লাখ ৫০ হাজার টাকা সর্বমোট ১১ কোটি ৮৭ লাখ ২০ হাজার টাকা স্থানান্তর করা হয়েছে।

এছাড়াও মনিরের ব্যাংক হিসাব থেকে জেসমিন প্রধানের নাম-সর্বস্ব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান জে. ডব্লিউ. লীলাবালীর এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের হাতিরপুল শাখার একাউন্টে বিভিন্ন সময়ে চেকের মাধ্যমে আরও ৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা স্থানান্তর করা হয়েছে। অথচ জেসমিন প্রধানের সাথে এমপি পাপুলের সহকারী মনিরের কোনো ব্যবসায়িক সম্পর্কের অস্তিত্ব পায়নি সিআইডি।

ইত্তেফাক/কেকে

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত