বন্ধুকে হত্যার দায়ে ২ কিশোরের ৭ বছরের কারাদণ্ড

বন্ধুকে হত্যার দায়ে ২ কিশোরের ৭ বছরের কারাদণ্ড
প্রতীকী ছবি। ছবি: সংগৃহীত

বাগেরহাটে মোংলায় মো. হৃদয় (১৬) নামে একজনকে হত্যার দায়ে দুই কিশোরকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। দণ্ডিতরা শিশু আইন অনুযায়ী শিশু হওয়ায় তাদের কারাগারে না রেখে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে রাখার আদেশ দেন আদালত। মঙ্গলবার (২২ জুন) বিকেলে বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মো. নূরে আলম আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

তারা হলেন, বাগেরহাটের মোংলা পৌরসভার মালগাজী এলাকার প্রয়াত মো. বাবুল হাওলাদারের ছেলে মো. জিহাদুল ইসলাম জিহাদ (১৭) এবং একই এলাকার আমির হোসেনের ছেলে শাহীন হোসেন (১৭)। নিহত মো. হৃদয় মোংলা পৌরসভার আব্দুল হাই সড়কের মো. দুলাল তালুকদারের ছেলে।

মামলার নথির বরাতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রণজিৎ কুমার মন্ডল বলেন, খুনের শিকার মো. হৃদয় ও দণ্ডিত আসামি জিহাদুল ও শাহীন এরা পরস্পরের বন্ধু ছিল। এরা তিনজনই মাদকাসক্ত। ঘটনার দিন ২০১৭ সালের ২৯ মে রাত আটটার দিকে মাদকসেবন করা নিয়ে হৃদয়ের সাথে শাহীন ও জিহাদের দ্বন্দ্ব হয়। দ্বন্দ্বের জেরে শাহীন ও জিহাদ দু’জনে মিলে হৃদয়কে মাথায় আঘাত করে পরে শ্বাসরোধে হত্যা করে নৌ-বাহিনীর ক্যাম্পের বেড়িবাঁধ এলাকায় মরদেহটি ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরদিন হৃদয়ের মরদেহটি পুলিশ উদ্ধার করে। এই ঘটনায় ৩০ মে নিহতের বাবা মো. দুলাল তালুকদার অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মোংলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ইত্তেফাক/এসজেড

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x