হাশেম ফুডসে আগুনের ঘটনা নিয়ে হাইকোর্ট

‘ব্যবসায়িক সংগঠনগুলো শুধু সরকারের কাছ থেকে প্রণোদনা নিতেই ব্যস্ত’

‘ব্যবসায়িক সংগঠনগুলো শুধু সরকারের কাছ থেকে প্রণোদনা নিতেই ব্যস্ত’
নারায়ণগঞ্জে সেজান জুন ফ্যাক্টরিতে আগুন। ছবি: ইত্তেফাক

আগুনে পুড়ে কারখানা। সেই কারখানার আগুনে পুড়ে অঙ্গার হয় শতশত শ্রমিক। কিন্তু শ্রমিকের অঙ্গার হওয়ার ঘটনায় দেশের শীর্ষ ব্যবসায়িক সংগঠনগুলোর ভূমিকা কি তা নিয়ে এবার প্রশ্ন তুলেছে হাইকোর্ট। আদালত বলেছে, সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক হলো দেশের ব্যবসায়িক সম্প্রদায় যারা আছেন, তাদের কিন্তু এসব বিষয়ে ওভারসি (তদারকি) করার কোন পদক্ষেপ দেখা যায় না।

এ ঘটনায় এফবিসিসিআই বিবৃতি দিয়ে এই শ্রমিকদের মৃত্যুর বিষয়ে কোনো শোক প্রকাশ করেছে বা তাদের কোনো প্রতিনিধি দল সেখানে গিয়েছেন তেমনটা দেখা যায়নি। একটি মানবাধিকার সংগঠনের রিট আবেদনের শুনানিতে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের একক ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার এ মন্তব্য করেন।

বিচারপতি বলেন, ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর কি কোন দায়বদ্ধতা নাই। এসব সংগঠন শুধু আছে সরকারের কাছ থেকে কিভাবে প্রণোদনা নেবে আর ব্যাংকের ঋণগুলো মাফ করাবে। এইসব ক্ষেত্রে (আগুনের ঘটনা) শ্রমিকদের স্বার্থ দেখার জন্য ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর যে দায়বদ্ধতা সেখানে তাদের কাজ করা উচিত।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে হাসেম ফুডস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে হতাহত শ্রমিকদের বকেয়া বেতন-বোনাসসহ ক্ষতিপূরণ প্রদানের নির্দেশনা চেয়ে রিট করেন মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট)। রিটের বিষয়বস্তু আদালতের নজরে আনেন ব্লাস্টের কৌসুলি ব্যারিস্টার সারা হোসেন।

এ পর্যায়ে বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম বলেন, পত্রিকায় দেখলাম বেতন বোনাস দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। আহত শ্রমিকদের কিভাবে তা দেওয়া হবে সে বিষয়ে কর্তৃপক্ষের একটা বক্তব্য সেখানে আছে। তিনি বলেন, বিশেষ করে কারখানাগুলো তদারকি করার জন্য যেসব সংস্থা রয়েছে তারা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছেন কিনা সেটা দেখা উচিত। আজকে পত্রিকায় দেখলাম পরিদর্শনের যান গিয়ে খাম নিয়ে চলে আসেন। এসব জায়গাগুলোতে আপনাদের (মানবাধিকার সংগঠনগুলোর) কাজ করার সুযোগ আছে।

বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম বলেন, আপনারা যারা বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন নিয়ে আছেন, তারা বিভিন্ন ইস্যুতে কোর্টে আসেন। আমাদের দেশে অনেক ব্যবসায়ী সংগঠন আছে। কিন্তু বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো কিভাবে চলছে, কোথায় দুর্বলতা, কোথায় ঘাটতি রয়েছে সেসব ক্ষেত্রে এফবিসিসিআইসহ ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর ভূমিকা রাখা দরকার। পোশাক শিল্পের পরিবেশ নিয়ে বিদেশিরা চাপ দিয়েছে বিধায় সেখানে একটা সুষ্ঠু পরিবেশ আনা হয়েছে। আমাদের দেশে যতক্ষণ চাপ না দিচ্ছেন, ততক্ষণ কোন পজিটিভ ভূমিকা দেখা যায় না। এক্ষেত্রে ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর কি কোন দায়বদ্ধতা নাই।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x