শ্রমিক রপ্তানি: ১০ এজেন্সির জোট তদন্তে কমিটির প্রতিবেদন দাখিলে নির্দেশ

প্রকাশ : ২৬ জুন ২০১৯, ১৭:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

  অনলাইন ডেস্ক

ফাইল ছবি

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠাতে ১০টি রিক্রুটিং এজেন্সির জোট গঠনের বিষয় তদন্তে আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির প্রতিবেদন ১৮ জুলাইয়ের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বুধবার এ আদেশ দেন।

হাইকোর্টের আদেশে গঠিত তদন্ত কমিটিকে বিষয়গুলো তদন্ত করে আগামী ১৮ জুলাইয়ের মধ্যে প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে ৯ সদস্যর কমিটি থেকে দুদকের প্রতিনিধি প্রত্যাহার চেয়ে করা আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন আদালত। আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম, রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি এটর্নি জেনারেল একরামুল হক টুটুল।

ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম বলেন, ‌‘হাইকোর্টের আদেশে সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে গত ১০ ফেব্রুয়ারি কমিটি গঠন করেছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। ওই কমিটিতে দুদকেরও একজন প্রতিনিধি রাখা হয়েছে। দুদক কমিটি থেকে তাদের প্রতিনিধির নাম প্রত্যাহার করতে আদালতে আবেদন করেছিল। কিন্তু আদালত তাদের আবেদনে সাড়া দেয়নি। আদালত দুদকের প্রতিনিধিসহ ৯ সদস্যর কমিটিকে সিন্ডিকেটের বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলেছে।’

আরও পড়ুন: ‘কঠিন বর্জ্য ও পয়ঃবর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

এর আগে মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো নিয়ন্ত্রণকারী ১০ রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের গঠন করা কমিটি আদালতে দাখিল করা হয়। হাইকোর্টের আদেশে গঠিত কমিটিতে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবকে আহ্বায়ক করা হয়েছে। গত বছরের মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো নিয়ন্ত্রণকারী ১০টি রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে কমিটি গঠনে গত বছর ২৯ অক্টোবর নির্দেশ দেন আদালত। একইসঙ্গে শুধু ১০টি এজেন্সির সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মালয়েশিয়া লোক পাঠানো নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং ওই ১০ এজেন্সির কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায়ে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না-রুলে তা জানতে চাওয়া হয়।

মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি উপেক্ষা করে ১০ এজেন্সির মাধ্যমে লোক নেয়ার ঘটনার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বঞ্চিত অপর ১০টি এজেন্সি হাইকোর্টে রিট করেন। বাসস

ইত্তেফাক/কেকে