অরিত্রীর আত্মহত্যা: ভিকারুননিসার ২ শিক্ষকের বিচার শুরু

প্রকাশ : ১০ জুলাই ২০১৯, ১৫:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

  অনলাইন ডেস্ক

অরিত্রী অধিকারী। ফাইল ছবি

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলার দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। অভিযোগ গঠনের ফলে আনুষ্ঠানিকভাবে এ মামলার বিচার শুরু হলো। 

আজ বুধবার ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো. রবিউল আলম এই মামলার অভিযোগ গঠন করেন। একই সঙ্গে আদালত আগামী ২৭ অক্টোবর সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ ধার্য করেন।

যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে তারা হলেন- প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস ও শাখাপ্রধান জিনাত আক্তার। দুই শিক্ষকই আদালতে আজ উপস্থিত ছিলেন।

তাদের পক্ষে দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর মোশাররফ কাজল অব্যাহতির আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষে সাবিনা ইয়াসমিন (দিপা) এবং বাদীপক্ষের আইনজীবী সবুজ বাড়ৈ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আবেদন করেন।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক আসামিদের কাছে জানতে চান, তারা দোষী না নির্দোষ। জবাবে তারা নিজেদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার দাবি করেন। এরপর বিচারক আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

আরও পড়ুন: কুমিল্লায় চারজনকে কুপিয়ে হত্যা, গণপিটুনিতে ঘাতক নিহত

পুলিশ ও পরিবারের তথ্যানুযায়ী, ২০১৮ সালের ২ ডিসেম্বর সমাজবিজ্ঞান পরীক্ষা চলার সময় তার কাছে একটি মোবাইল ফোন পাওয়া যায়। এ জন্য অরিত্রির মা-বাবাকে ডেকে নেন ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ।

তাদের ডেকে মেয়ের সামনেই অপমান করে বলেন, সিদ্ধান্ত হয়েছে অরিত্রিকে নকলের অভিযোগে প্রতিষ্ঠান থেকে বের করে দেওয়া হবে। এ অপমান সইতে না পেরে বাসায় এসে অরিত্রি আত্মহত্যা করে।

ইত্তেফাক/কেকে