ঢাকা মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬
২৫ °সে

খুলনায় জ্বর ও শ্বাসকষ্টে একজনের মৃত্যু, সন্দেহে করোনা

খুলনায় জ্বর ও শ্বাসকষ্টে একজনের মৃত্যু, সন্দেহে করোনা
ফাইল ছবি

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোস্তাহিদুর রহমান (৪৫) নামে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার সময় তার মৃত্যু হয়। তিনি করোনায় আক্রান্ত রোগী ছিলেন বলে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন। মোস্তাহিদুর রহমান খুলনা মহানগরীর হেলাতলা এলাকার সাইদুর রহমানের ছেলে।

খুমেক হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (মেডিসিন) ও করোনা ম্যানেজমেন্টের ফোকাল পার্সন ডা. শৈলেন্দ্রনাথ বিশ্বাস জানান, গত বুধবার রাত আড়াইটার দিকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি ইউনিটে ভর্তি হন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে তার মৃত্যু হয়। তিনি জানান, গত দুই সপ্তাহ আগে ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে মোস্তাহিদুর রহমানের থাইরয়েড সার্জারি করা হয়। তিনি ঐ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। গত বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে তিনি খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এ সময় তিনি জ্বর ও শাসকষ্টের কথা জানিয়েছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন। তবে বায়োপসি রিপোর্ট ছাড়া নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।

খুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. এ টি এম মঞ্জুর মোর্শেদ জানান, ওই রোগীর জ্বর ও শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ার পর চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা সংক্রান্ত পূর্ববর্তী তথ্য নেন। এই হাসপাতালে আসার আগে ওই রোগী ঢাকার মডার্ন হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। একই আইসিইউতে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্ত একজন রোগী মারা গিয়েছিল। কিন্তু ওই রোগী এখানে ভর্তির সময় সেই তথ্য গোপন করেন। তা না হলে তাকে করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হতো।

আরো পড়ুন : চীনের দেয়া টেস্টিং কিট-পিপিই ঢাকায়

ডা. মোর্শেদ জানান, ওই রোগীকে মডার্ন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়ার পর হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলেছিল। কিন্তু তিনি তা মানেননি এবং তথ্য গোপন করে এখানে ভর্তি হন। তার কারণে ঝুঁকি বেড়ে গেলো।

হাসপাতালের পরিচালক বলছেন, ওই রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া ১৫/২০ জন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হচ্ছে।

ইত্তেফাক/ইউবি

ঘটনা পরিক্রমা : করোনা ভাইরাস

আরও
এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
০৭ এপ্রিল, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন