বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭
৩০ °সে

প্রণোদনা বাস্তবায়ন না করা ব্যাংক থেকে সরকারি আমানত প্রত্যাহারের দাবি এফবিসিসিআইর

প্রণোদনা বাস্তবায়ন না করা ব্যাংক থেকে সরকারি আমানত প্রত্যাহারের দাবি এফবিসিসিআইর
ফাইল ছবি

করোনার সময়ে অর্থনীতিতে গতি আনতে বড় অঙ্কের প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে সরকার। এর মধ্যে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের (এসএমই) জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার ঋণের ঘোষণাও রয়েছে। কিন্তু ব্যাংকগুলো এক্ষেত্রে সহযোগিতা করছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে যেসব ব্যাংক প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন করবে না, সেখানে থাকা সরকারের আমানত তুলে নেওয়ার দাবি জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।

একই সঙ্গে ওইসব ব্যাংকের উপর বাড়তি কর আরোপ এবং যেসব ব্যাংক এই প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন করবে, সেখানে সরকারের আমানত বাড়ানোর প্রস্তাবও দেওয়া হয়।

শনিবার রাজধানীর মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। কোন ঋণখেলাপির পক্ষে এফবিসিসিআই ঋণের জন্য সুপারিশ করবে না বলেও জানান তিনি।

এ সময় তিনি অভিযোগ করেন, প্রণোদনা নিয়ে একটি শ্রেণি বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছে। তারল্য সংকটের কারণে ব্যাংকগুলো প্রণোদনার আওতায় ঋণের অর্থ দিতে পারছে বলে বলা হলেও এর সঙ্গে একমত নন এফবিসিসিআই সভাপতি।

তিনি বলেন, ব্যাংকে তারল্য বাড়ানোর জন্য সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। ফলে ঈদের আগেই ব্যাংকগুলোতে ৭০ হাজার কোটি টাকা নতুন তারল্য সৃষ্টি হয়েছে। ব্যাংককাররা আমাদের সঙ্গে (এফবিসিসিআই) সভায়ও বলেছে, কোন তারল্য সংকট নেই। তিনি বলেন, প্রণোদনা বাস্তবায়ন কেবল ব্যবসায়ীদের স্বার্থে নয়, সার্বিকভাবে সমাজের উপর এর প্রভাব পড়বে।

এসএমই খাতের জন্য প্রণোদনার আওতায় বরাদ্দ হওয়া ২০ হাজার কোটি টাকা ঋণের মধ্যে গত দুই মাসে মাত্র ৫০ কোটি টাকা ছাড় হয়েছে বলে জানান এফবিসিসিআই সভাপতি।

সংবাদ সম্মেলনে আয়কর ও ভ্যাটের বিভিন্ন প্রস্তাব নিয়ে ব্যবসায়ীদের আপত্তির কথা তুলে ধরে বাজেট পাসের সময় এসব বিষয়ে সংশোধনের দাবি জানায় এফবিসিসিআই। সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, এ সময় এফবিসিসিআই সভাপতি অভিযোগ করেন, এ ধরণের বেশকিছু সিদ্ধান্তের কারণে ব্যবসায়ে অহেতুক জটিলতা তৈরি হবে। এনবিআর ভ্যাট আইনকে ব্যবসাবান্ধব করার চাইতে নতুন নতুন প্রকল্প নেওয়ায় আগ্রহী। এটি নিয়ে নিজেদের অসন্তোষের কথা জানান তিনি। একই সঙ্গে অতীতে নেওয়া বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন না হওয়ার পেছনে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও জানান এফবিসিসিআই সভাপতি।

সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসায়ীরা নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া অনলাইনেও বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী নেতা ও সাংবাদিকরা যুক্ত হন।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত