সঞ্চয়পত্র বিক্রি বেড়েছে

ছয় মাসেই পুরো অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি ঋণ নিয়েছে সরকার
সঞ্চয়পত্র বিক্রি বেড়েছে
ফাইল ছবি

সঞ্চয়পত্র কিনতে সরকার নানা বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। কারণ ব্যাংকে আমানত রাখলে যে পরিমাণ সুদ পাওয়া যায়, সঞ্চয়পত্রে তার চেয়ে বেশি লাভ পাওয়ায় বিনিয়োগকারীরা এদিকে ঝুঁকছিলেন। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে চলে গিয়েছিল, সঞ্চয়পত্রে এত এত বিনিয়োগ আসছিল যে তা সরকারের জন্য বিপজ্জনক পর্যায়ে চলে যাচ্ছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সঞ্চয়পত্র কিনতে বেশ কিছু কড়াকড়ি আরোপ করে সরকার। কর শনাক্তকরণ নম্বর (টিআইএন) বাধ্যতামূলক করা এবং ডিজিটাল নিবন্ধন করা জরুরি। এরই মধ্যে গত বছরের শুরু থেকে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে থাকে। প্রথমে কয়েক মাস সঞ্চয়পত্র বিক্রি কমলেও পরে তা বাড়তে থাকে।

মহামারি ও নানা শর্তের বেড়াজালের পরেও চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাস জুলাই থেকে ডিসেম্বর সময়ে ২০ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে, গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল মাত্র ৫ হাজার ৪৩৩ কোটি টাকা। অর্থাত্, গত অর্থবছরের একই মাসের তুলনায় বিক্রি ২৭৭ শতাংশ বেড়েছে। জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ব্যবসা-বাণিজ্যে মন্দা, ব্যাংকে আমানতের সুদের হার কম হওয়ায় সাধারণ মানুষ এখন সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগে সবচেয়ে বেশি ‘নিরাপদ’ মনে করছে। তাই বিভিন্ন শর্ত পরিপালন করেও সঞ্চয়পত্রে ঝুঁকছেন বিনিয়োগকারীরা। চলতি (২০২০-২১) অর্থবছরের বাজেটে ঘাটতি ধরা হয়েছে ১ লাখ ৯০ হাজার কোটি টাকা। বিশাল ঘাটতি মেটাতে এবার সঞ্চয়পত্র থেকে ২০ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার লক্ষ্য ঠিক করেছে সরকার, সমাপ্ত অর্থবছরে বাজেটে যার লক্ষ্য ছিল ২৭ কোটি টাকা।

গত ২০১৯-২০ অর্থবছরে মোট সঞ্চয়পত্র বিক্রির পরিমাণ ১৪ হাজার ৪২৮ কোটি ৩৫ লাখ টাকা, যা তার আগের অর্থবছরে ৪৯ হাজার ৯৩৯ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। সেই হিসাবে গেল অর্থবছরে সঞ্চয়পত্রের বিক্রি কমেছিল ৭১ দশমিক ১০ শতাংশ। বাজেট ঘাটতি মেটাতে ব্যাংক ঋণ ছাড়াও সঞ্চয়পত্র থেকে ঋণ করে থাকে সরকার। তবে সামাজিক সুরক্ষার কথা বিবেচনায় নিয়ে সঞ্চয়পত্রে তুলনামূলক বেশি মুনাফা দেয় সরকার। প্রতি মাসের বিক্রি থেকে আগে বিক্রি হওয়া সঞ্চয়পত্রের সুদ-আসল পরিশোধের পর নিট ঋণ হিসাব হয়। এই অর্থ সরকার রাষ্ট্রীয় কর্মসূচি বাস্তবায়নে কাজে লাগায়।

সঞ্চয়পত্র বিক্রির লাগাম টানতে ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে এই খাতের বিনিয়োগে একের পর এক কড়াকড়ি আরোপ করতে থাকে সরকার। সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের কড়াকড়ির পরেও কেন বিক্রি বাড়ছে, এ বিষয়ে ব্যাংকাররা বলেছেন যে, করনীতি কড়াকড়ি আরোপের পরও সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ অনেক বাড়ছে। এটা ইঙ্গিত দেয় যে, দেশের মানুষের জন্য সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের চেয়ে ভালো বিকল্প আর নেই।

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x