চট্টগ্রামে উন্মুক্ত হলো নান্দনিক বালি আর্কেড

চট্টগ্রামে উন্মুক্ত হলো নান্দনিক বালি আর্কেড
[ছবি: সংগৃহীত]

সাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হল চট্টগ্রামের বৃহৎ সুপারমল 'বালি আর্কেড’। শেঠ গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান শেঠ প্রপার্টিজ লিমিটেডের একটি সিগনেচার প্রকল্প হিসেবে বিশ্বমানের সুবিধা নিয়ে নান্দনিক শৈল্পিকতায় নির্মিত হয়েছে এই সুপারমলটি। ২টি বেজম্যান্ট কার পার্কিং সম্বলিত ১৪ তলা বিশিষ্ট স্বয়ংসম্পূর্ণ বাণিজ্যিক কমপ্লেক্স হিসেবে বালি আর্কেড প্রকল্পটি নির্মিত হয়েছে শহরের প্রাণকেন্দ্র চকবাজার সিরাজুদ্দৌলা সড়কে।

সুপারমল উদ্বোধন করেন শেঠ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলায়মান আলম শেঠ। তিনি বলেন, পুরো রমজান মাস জুড়ে নানা আনুষ্ঠানিকতায় বালি আর্কেডে দেশখ্যাত তারকাদের প্রতিনিয়ত অংশগ্রহণ থাকবে। রমজানে বালি আর্কেড থেকে শপিং করলেই সকল ক্রেতা পাবেন বিশেষ উপহার।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন শেঠ গ্রুপের সিইও ও পরিচালক মোঃ আফতাব আলম শেঠ, পরিচালক মোঃ নুরুল আলম শেঠ, পরিচালক (হিসাব) ওয়াহিদুল আলম শেঠ, পরিচালক মোঃ মাশহুর আলম শেঠ, পরিচালক মোঃ উজায়ের আলম শেঠ, পরিচালক মিসেস সারিস্ত বিনতে নুর, পরিচালক উমায়ের আলম শেঠ, পরিচালক অপারেশন টুলু-উশ্-শামস্।

শপিংমলে ৩টি সিনেপ্লেক্স, ২টি ফুডকোট, কনভেনশন হলসহ সর্বমোট ২৬০টি শপ, শোরুম এবং ডিসপ্লে সেন্টার রয়েছে। বিশ্বমানের আর্কিটেকচারাল ডিজাইনে নির্মিত এই প্রকল্পে রয়েছে ৩০ হাজার স্কয়ার ফিটের দেশের অন্যতম বৃহৎ এমিউজমেন্ট পার্ক ও তিনটি সিনেপ্লেক্স। রয়েছে চট্টগ্রামের প্রথম এবং সর্ববৃহৎ অভিজাত শ্রেণির ফ্যামিলি এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্টিনেশন ক্যাসাব্লাঙ্কা।

বিশ্বমানের সুপারমল বালি আর্কেডে আরও রয়েছে আন্তর্জাতিকমানের পৃথক পৃথক কুইজিন বেইস ফুডকোট, স্বতন্ত্র লেডিস জোন। যেখানে ক্রেতা-বিক্রেতা সকলেই থাকবেন নারী।

এছাড়া রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডশপ সম্বলিত মোবাইল ফোন, মোবাইল এক্সেসরিজ, কসমেটিক জোন, জেন্টস ব্র্যান্ডশপ, লাইফস্টাইল, পার্লারসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডপ্রতিষ্ঠান, যেখানে ১৫০ টির ও অধিক গাড়ী পার্কিং রয়েছে। পুরো শপিংমলে ফ্রি ওয়াইফাইয়ের ব্যবস্থা রয়েছে।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x