বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বিলিয়নিয়ার বেইজিংয়ে

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বিলিয়নিয়ার বেইজিংয়ে
ছবি: সংগৃহীত।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস গত মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) বিশ্বের বিলিয়নিয়ার তালিকা প্রকাশ করেছে। ফোর্বসের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে বিশ্বের অন্য যে কোনও শহরের তুলনায় চীনে অনেক বেশি বিলিয়নিয়ারের বসবাস।

২০২০ সাল মহামারি করোনার বছর হলেও এই বছর নতুন করে ৬১০ জন কোটিপতি হয়েছেন। সারাবিশ্বে এখন সবচেয়ে বেশি কোটিপতি আছেন বেইজিংয়ে। মহামারির বছরে টাকার পাহাড় গড়েছে অনেক আন্তর্জাতিক কোম্পানিও। এতে দেখা গেছে গত বছর চীনের রাজধানীতে নতুন করে ৩৩ জন শত কোটিপতি হয়েছেন। বর্তমানে ১০০ জন শত কোটিপতির বাস এই শহরে।

চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত করা আরও একটি গবেষণায় দেখা গেছে, গত বছর নতুন করে সারাবিশ্বে ৬১০ জন কোটিপতি হয়েছেন, এদের মধ্যে ৩১৮ জনই চীনের। বাকি ৯৫ জন যুক্তরাষ্ট্রের।

এবার তালিকায় নতুন করে যুক্ত হওয়াদের মধ্যে ৪৯৩ জনই প্রথমবারের মতো বিলিয়নিয়ার হয়েছেন। অর্থাৎ বিশ্বে প্রতি ১৭ ঘণ্টায় একজন ব্যক্তি বিলিয়নিয়ার হয়েছেন। আর গোটা দুনিয়ায় বিলিয়নিয়ারের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ২ হাজার ৭৫৫ জনে উন্নীত হয়েছে। আর তাঁদের সম্মিলিত সম্পদের নিট মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ১ ট্রিলিয়ন বা ১৩ লাখ ১০ হাজার কোটি মার্কিন ডলার।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এক বছরে সারাবিশ্বে এতো কোটিপতি আগে কখনো হতে দেখেননি তারা। তার ওপর আবার মহামারির মধ্যে কোটিপতির সংখ্যা এভাবে বেড়েছে। মহামারিতে সারাবিশ্ব অর্থনৈতিক সংকটে পড়লেও কোটিপতিরা আরো কোটিপতি হয়েছেন। মহামারির বছরে সারা বিশ্বে কোটিপতিদের অর্থ বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ১৫ ট্রিলিয়ন ডলার। করোনার বছরে বিশ্বের ৬৮টি দেশের ২ হাজার ৪০২টি কোম্পানির ৩ হাজার ২২৮ জন কোটিপতির অর্থ সম্পদ বেড়েছে। স্বাস্থ্যসুরক্ষা আর খুচরা বিক্রিতে বাজিমাত করেছেন কোটিপতিরা। তালিকায় ছিল বৈদ্যুতিক গাড়ি আর ই-কমার্স খাত।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x