অপ্রদর্শিত অর্থ বন্ডে বিনিয়োগের সুযোগ চায় ডিএসই

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৯, ০৩:০১ | অনলাইন সংস্করণ

  ইত্তেফাক রিপোর্ট

ফাইল ছবি

ফ্ল্যাট, জমি কেনা এবং হাইটেক পার্ক ও ইকোনমিক জোনের মতো অপ্রদর্শিত অর্থ বিনা প্রশ্নে পুঁজিবাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত বন্ডে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার দাবি জানিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। একই সঙ্গে আরো পাঁচটি দাবি পুনর্বিবেচনা করার কথা বলেছে প্রতিষ্ঠানটি। এসব দাবি মানলে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ তৈরি হবে এবং জাতীয় অর্থনীতি আরও গতিশীল হবে বলে মনে করে ডিএসই।

গতকাল রবিবার ডিএসইর প্রধান কার্যালয়ে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি করা হয়। এ সময় ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল হাশেম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে এ এম মাজেদুর রহমান, পরিচালক রকিবুর রহমান, শরীফ আতিউর রহমান, মিনহাজ মান্না ইমন এবং মনোয়ারা হাকিম আলী উপস্থিত ছিলেন।

কে এ এম মাজেদুর রহমান বলেন, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে শেয়ারবাজারের জন্য যেসব প্রস্তাবাদি রাখা হয়েছে এতে বাজারে বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি হবে এবং জাতীয় অর্থনীতি আরও গতিশীল হবে।

আরও পড়ুন: ভূতুড়ে র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ

পুনর্বিবেচনার দাবি জানানো ডিএসইর পাঁচ প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে- স্টক এক্সচেঞ্জকে ডিমিউচ্যুয়ালাইজড পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য পূর্ণ কর অব্যাহতি দেওয়া। এসএমই মার্কেটের লেনদেনের ওপর উেস কর অব্যাহতি দেওয়া। স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেডিং প্লাটফর্মের মাধ্যমে ট্রেজারি বিল এবং বন্ডের লেনদেনের ওপর কর অব্যাহতির বিষয়ে সুস্পষ্টকরণ। তালিকাভুক্ত ও অতালিকাভুক্ত কোম্পানির মধ্যে কর্পোরট কর হারের পার্থক্য ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২০ শতাংশ করা এবং স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেক হোল্ডারদের নিকট থেকে উৎস কর সংগ্রহের হার হ্রাস করা।

ইত্তেফাক/আরকেজি