ঢাকা বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
১৯ °সে


দেশের প্রথম সর্বাধুনিক নেটওয়ার্কের আওতায় শাবি

দেশের প্রথম সর্বাধুনিক নেটওয়ার্কের আওতায় শাবি
ছবি: সংগৃহীত

ইন্টারনেট ভিত্তিক আইপি এ্যাড্রেসের সর্বাধুনিক ভার্সন IPv6 এ দেশের প্রথম কোন বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে সংযুক্ত হলো শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি)। রবিবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফরমেশন সেন্টারে আয়োজিত সাংবাদিকদের সাথে এক আলোচনা সভায় এ কথা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইটি ম্যানেজার মো. এএসএম খায়রুল আক্তার চৌধুরী।

এসময় তিনি বলেন, এ সিস্টেমে যুক্ত হওয়ার ফলে Linkedin, Google, Twitter সহ বিভিন্ন বিখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান যারা IPv6 সিস্টেম ব্যবহার করে, সেসকল সাইটগুলো অনেকবেশী গতিতে ব্যবহার করা যাবে। যেসকল গবেষণার ক্ষেত্রে IPv6 প্রয়োজন সেগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা খুব সহজে করতে পারবে। IPv4 native হয়ে NAT হয় কিন্তু IPv6 এ native হয়ে NAT হয় না।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আইসিটির ভারপ্রাপ্ত ডিরেক্টর অধ্যাপক ড. মো. শহিদুর রহমান, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এর ডাটা সেন্টার অপারেসন্স ম্যানেজার মো. আব্দুল আউয়াল, রয়েল গ্রীন লিমিটেডের আইপি ম্যানেজার ও কোর অপারেসন্স নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

আইটি ম্যানেজার খায়রুল আরো বলেন, ইন্টারনেটে দুনিয়ার তথ্য এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় গ্রহন এবং প্রেরন করার জন্য একটি নির্দিষ্ট ঠিকানা বা অ্যাড্রেস এর প্রয়োজন হয়। আর এই নির্দিষ্ট অ্যাড্রেসটিই হলো আইপি অ্যাড্রেস। আইপি অ্যাড্রেস (IP Address) এর পুরো নাম হলো “ইন্টারনেট প্রোটোকল অ্যাড্রেস” (Internet Protocol Address)। বর্তমানে ২টা আইপি এ্যাড্রেস ব্যবহার করা হয়। সেগুলো হল IPv4 এবং সর্বাধুনিক সিস্টেম IPv6। আর বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে শাবিই প্রথম এ সিস্টেমের আওতায় আসলো।

অধ্যাপক ড. মো. শহিদুর রহমান বলেন, IPv4 কেবল মাত্র চার বিলিয়ন ইউনিক আইপি জেনারেট করতে পারে। প্রথমবার যখন এই IPv4 সিস্টেম বানানো হয়েছিলো তখন হয়তো এটা ধারনাই করা হয়নি যে বিশ্বে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এতোটা বেড়ে যাবে। আর এজন্যই এক নতুন সিস্টেম উন্নতিকরণ হয়েছে, যার নাম হলো IPv6। এই সিস্টেমের মাধ্যমে প্রত্যেকটি মানুষের কাছে যদি কয়েক লাখ ডিভাইজও থাকে তবেও ইউনিক অ্যাড্রেস ব্যবহার করে শেষ করা সম্ভব হবে না। তাছাড়া, আমাদের বাসাবাড়িতে বিভিন্ন প্রযুক্তির ব্যবহারের বৃদ্ধির ফলে নতুন নতুন আইপি এ্যাড্রেসের প্রয়োজন হচ্ছে। যেটা IPv6 এর মাধ্যমে সরবরাহ করা সম্ভব। আর শাবি এ এ্যাড্রেসের আওতায় আসায় আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রযুক্তির জন্য আইপি এ্যাড্রেসের সমস্যা হবে না।এছাড়া সেন্সর এবং বিভিন্ন আইওটি রোবোটিক ভিত্তিক বিভিন্ন প্রজেক্টের আইপি এ্যাড্রেস নিয়ে সমস্যা হবে না।

ইত্তেফাক আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১১ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন