বাদপড়া সব প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি

বাদপড়া সব প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি
জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেয়া হচ্ছে। ছবি : সংগৃহীত

বাদপড়া সব প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবিতে দেশের বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। রবিবার পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৬৪ জেলায় মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে এ স্মারকলিপি দেয়া হয়।

২০১৩ সালের ৯ জানুয়ারি দেশের ৩০ হাজার ৩৫২টির মধ্যে ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করা হয়।

সংগঠনের নেতারা বলছেন, পরিসংখ্যানের ভুলের কারণে চার হাজার ১৫৯টি বিদ্যালয় জাতীয়করণের তালিকা থেকে বাদ পড়ে। এরপর দেশের আরো এক হাজার তিনশ’ বিদ্যালয় জাতীয়করণের জন্য উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে যাচাই-বাছাই শেষে মন্ত্রণালয়ে তথ্য পাঠানো হয়।

গত ৬ সেপ্টেম্বর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এরই মধ্যে নির্বাচিত ২৬ হাজার ১৯৩টি বিদ্যালয়ের বাইরে আর কোনো বিদ্যালয় জাতীয়করণ করা হবে না। সংগঠনটির পক্ষ থেকে এই বিজ্ঞপ্তির প্রতিবাদ জানানো হয় স্মারকলিপিতে।

সংগঠনটির সভাপতি মামুনুর রশিদ খোকন বলেন, শিক্ষকদের প্রশ্ন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন ৩৭ হাজার বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেন এবং প্রধানমন্ত্রী যখন ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেন এই বিদ্যালয়গুলো তৈরির উদ্যোক্তা কে ছিলেন? নিশ্চয়ই এলাকায় এমপি, মন্ত্রী ও এলাকার গণ্যমান্য শিক্ষা অনুরাগী ব্যক্তিবর্গ। তাহলে শিক্ষকদের দাবি আমাদের বিদ্যালয়গুলো এলাকার সংসদ সদস্য, মন্ত্রী ও গণ্যমান্য ব্যক্তি, শিক্ষা অনুরাগী ও সুশীল সমাজের লোকেরা এই বিদ্যালয়গুলো তৈরি করেছে এবং সরকারের নামে জমির দলিল করে দিয়েছেন। এই জমি যেহেতু সরকারের নামে রেজিস্ট্রি করে দেওয়া হয়েছে যা আর ফেরত পাওয়া সম্ভব নয়। তাই বাদ পড়া প্রতিষ্ঠানগুলোও জাতীয়করণের দাবি জানিয়েছি আমরা।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত