‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা’

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছার জ্যেষ্ঠ সন্তান শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর ট্রাস্ট্রি বোর্ডের চেয়ারম্যান, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দীন খান আলমগীর এবং উপাচার্য বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ড. মকবুল আহমেদ খান।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মকবুল আহমেদ খান এক বার্তায় বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপ, দূরদর্শী নেতৃত্ব-এর কারণে বাংলাদেশ শিক্ষার অগ্রগতি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। প্রায় তিন দশক ধরে আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। দীর্ঘ রাজনৈতিক পথচলায় মোকাবিলা করেছেন নানা চড়াই-উতরাই। রাজনৈতিক কারণে কখনো কারাভোগ করেছেন, আবার কখনো গৃহবন্দী থেকেছেন। ১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসেন শেখ হাসিনা। ওই বছর দলের সম্মেলনে শেখ হাসিনার অনুপস্থিতিতে তাকে আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। এরপর ওই বছরের ১৭ মে দেশে ফেরেন তিনি। চারবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার রেকর্ড গড়েছেন। ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে ক্ষমতায় আসে। ঐ বছর প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন শেখ হাসিনা। পর্যায়ক্রমে ২০০৮ সালে দ্বিতীয়, ২০১৪ সালে তৃতীয় ও ২০১৮ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হন তিনি। শেখ হাসিনার জন্ম ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর।

শেখ হাসিনার জীবনাদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের স্বদেশপ্রেমে উজ্জ্বীবিত হওয়ার আহ্বান জানান প্রফেসর ড. মকবুল আহমেদ খান।

ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছানোর কি কি উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে তাও বার্তায় উল্লেখ করেছেন প্রফেসর ড. মকবুল আহমেদ খান।

তিনি জানিয়েছেন, ভার্সিটি প্রাঙ্গণে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ গড়ে তোলা হয়েছে। যেখানে মুক্তিযুদ্ধের অডিও, ভিডিও, লিখিত ডকুমেন্ট সংরক্ষণ করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা জানতে পারবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত