চবি শিক্ষককে প্রাণনাশের হুমকি, পিউট্যাবের প্রতিবাদ

চবি শিক্ষককে প্রাণনাশের হুমকি, পিউট্যাবের প্রতিবাদ
ফাইল ছবি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কুশল বরণ চক্রবর্তীকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (পিউট্যাব)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষক জাকিয়া সুলতানা মুক্তা।

প্রতিবাদ লিপিতে সংগঠনটির পক্ষ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৯১ জন শিক্ষক স্বাক্ষর করেন।

প্রতিবাদ লিপিতে বলা হয়, সম্প্রতি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কুশল বরণ চক্রবর্তীকে মৌলবাদী একটি গোষ্ঠী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অডিওবার্তা প্রেরণের মাধ্যমে প্রাণনাশের হুমকি পাঠিয়েছে। বিষয়টি অত্যন্ত গর্হিত ও ন্যক্কারজনক ঘটনা বলে আমরা মনে করছি। একইসাথে আমরা উক্ত শিক্ষকের জীবনের নিরাপত্তা নিয়েও ভীষণ উদ্বেগে আছি। উল্লেখ্য উক্ত অডিওবার্তাটিতে এটা সুস্পষ্ট যে তা উগ্রপন্থী কোন গোষ্ঠির পক্ষ থেকে প্রেরণ করা হয়েছে, যাতে কেবল শিক্ষক কুশল চক্রবর্তীকে আক্রান্ত করার হুমকিই দেয়া হয়নি; একইসাথে এদেশের অসাম্প্রদায়িক চর্চায় বিশ্বাসী সবার প্রতিই অত্যন্ত উস্কানিমূলক ও অযৌক্তিকভাবে ঘৃণা প্রদর্শন করা হয়েছে। যা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে প্রভাবিত স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশের বর্তমান সরকার ও সব নাগরিকের প্রতি চূড়ান্ত অসম্মানের। আমরা ভীষণ বিস্ময় ও উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করলাম যে, উক্ত অডিওবার্তায় প্রেরিত হুমকিতে নির্দিষ্ট একটি রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাসীদের প্রতি ভবিষ্যতে ভীষণ উগ্রপন্থায় আক্রমণের ও দেশকে অদূর ভবিষ্যতে একটি অস্থিতিশীল অবস্থায় ফেলার কোন ষড়যন্ত্রের আভাসও বিদ্যমান। তাই বিষয়টিকে কেবল একক কোনও ব্যক্তির প্রতি হুমকি বলে বিবেচনার সুযোগ নেই, বরং এটিকে কোনও মৌলবাদী চক্রের গভীর ষড়যন্ত্র ও সাম্প্রদায়িক কোন গোষ্ঠীর বৃহত্তর চক্রান্তের নীলনকশার প্রাথমিক উৎসরণ হিসেবেও পর্যবেক্ষণের দায় রয়েছে। এই ধরনের উগ্রতা পোষণ করা আমাদের দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও পরমতসহিষ্ণুতার আবহমান চর্চার জন্য হুমকি স্বরূপ এবং শিক্ষক সমাজের স্বাভাবিক স্বতঃস্ফুর্ত জীবনযাপনের প্রতি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির নিয়ামক। যা একই সাথে অপ্রত্যাশিত, নিন্দনীয় ও শঙ্কার। তাই এহেন উগ্রবাদী বার্তার বিরুদ্ধে আমরা তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ(পিইউট্যাব) এক্ষেত্রে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা যেন অতিসত্ত্বর বিষয়টিকে সর্বাধিক গুরুত্বের সাথে নেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছে এবং এধরনের মৌলবাদী হুমকির ব্যাপারে যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে সত্যানুসন্ধানের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।

ইত্তেফাক/এমআরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত