ক্যান্সার নির্ণয়ে শাবির সাবেক শিক্ষার্থীর সাফল্য

ক্যান্সার নির্ণয়ে শাবির সাবেক শিক্ষার্থীর সাফল্য
ফাতেমা জেরীন ফারহানা। ছবি: সংগৃহীত।

কম খরচে ক্যান্সার নির্ণয়ে সাফল্য দেখিয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ফাতেমা জেরীন ফারহানা। তিনি রসায়ন বিভাগের ১৯৯৯-২০০০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

ফাতেমা জেরীন ফারহানার পিএইচডি সুপারভাইজার বুয়েটের রসায়ন বিভাগের প্রধান ড. মো. শাখাওয়াৎ হোসেন ফিরোজ দৈনিক ইত্তেফাকের শাবি প্রতিনিধিকে সোমবার (১০ মে) রাতে সাফল্যর বিষয়টি জানান।

ড. মো. শাখাওয়াৎ হোসেন ফিরোজ বলেন, কোন রকম ক্ষতিকারক কেমিক্যাল ছাড়া শুধু আয়রন এর লবণ এবং স্টার্চ ব্যবহার করে এই অজৈব এনজাইম তৈরি করা হয়েছে। নতুন কার্যকরী মূলক সংযোজন করা হয়েছে। যা কিনা প্রাকৃতিক এনজাইম এর মতো কাজ করছে এবং এর তৈরি মূল্য অনেক কম। এই অজৈব এনজাইম দিয়ে বিভিন্ন রকম ক্যান্সার বায়োমার্কার সহজে নির্নয় করা যাচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন উদ্ভিদেরও রোগ নির্নয় করা যাবে।

ক্যান্সার সনাক্তের এ পদ্ধতি ব্যবহারে কতটাকা লাগতে পারে জানতে চাইলে ড. মো. শাখাওয়াৎ হোসেন ফিরোজ বলেন, এটা সম্পূর্ণ ডিভাইস পর্যন্ত যেতে না পারলে সঠিকভাবে বলা সম্ভব নয়। তবে, আনুমানিক ৫০০ থেকে ৮০০ টাকার মধ্যে সম্ভব হবে বলে আশা করি।

বর্তমানের তুলনায় কম খরচ লাগার বিষয়ে ফাতেমা জেরীন বলেন, এখন ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো প্রাকৃতিক এনজাইম ব্যবহার করা হয়। যেটা অনেকটা ব্যয়বহুল। কিন্তু আমাদের পদ্ধতিতে কৃত্রিম এনজাইম ব্যবহার করায় কম খরচে নির্ণয় করা সম্ভব হবে।

এ পদ্ধতির আরেকটি বিশেষত্ব সম্পর্কে ফাতেমা জেরীন বলেন, এটা ইলেকট্রো কেমিক্যাল পদ্ধতিতে নির্ণয়ের পাশাপাশি খালি চোখেও নির্ণয় করা সম্ভব হবে।

এ পদ্ধতির ব্যবহার উপযোগির সময় সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা মাত্র ম্যাটেরিয়ালস ডেভেলপ করতে পেরেছি। ডিভাইস পর্যন্ত যেতে সময় লাগবে। আর ডিভাইস পর্যন্ত যেতে পারলেই ব্যবহারের জন্য বাজারজাতকরণ করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, এ গবেষণায় সহযোগী হিসেবে রয়েছে শাবির সাবেক আরেক শিক্ষার্থী অস্ট্রেলিয়ার গ্রিফিথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্দিকী গবেষণাগারের প্রধান জে.এ সিদ্দিকী শামিম।

এছাড়া, তাদের গবেষণার ফলাফল এ মাসেই (মে) আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত দ্য রয়েল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রি জার্নাল, অ্যানালিস্ট এবং দ্য আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটি জার্নাল, এসিএস অ্যাপ্লাইড ন্যানো মেটেরিয়ালসে প্রকাশিত হয়েছে।

এ বিষয়ে শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ফারহানার এ সাফল্য আমরা শাবি পরিবার গর্বিত। এ উদ্ভাবন চিকিৎসাক্ষেত্রে বিশেষ করে ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন এক দিগন্ত উন্মোচন করবে বলে আশা করি। এ কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট সাবাইকে বিশেষ ধন্যবাদ জানাই।

ইত্তেফাক/শাবি/এনএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x