ঢাকা শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ৬ বৈশাখ ১৪২৬
৩৪ °সে

চবির নিরাপত্তা দপ্তরে বেআইনিভাবে ২ জনকে আটকে রাখার অভিযোগ

চবির নিরাপত্তা দপ্তরে বেআইনিভাবে ২ জনকে আটকে রাখার অভিযোগ
ফাইল ছবি

বেআইনিভাবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) নিরাপত্তা দপ্তরে দুইদিন ধরে দুইজনকে আটকে রাখার অভিযোগ ওঠেছে নিরাপত্তা কর্মীদের উপর। আজ শনিবার রাত নয়টার দিকে আটকৃতদের উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি নাজিম উদ্দিন মোটর সাইকেল চোর সন্দেহে সিএনজির ড্রাইভার বেলাল ও ডিশ অপারেটর মো. জোবায়েরকে আটক করে বৃহস্পতিবার রাতে। পরে মারধর করে শুক্রবার সকাল ছয়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা দপ্তরে স্থানান্তর করে। তারা দুজনেই মদনহাট এলাকার বাসিন্দা বলে জানা যায়। তবে নিরাপত্তা দপ্তরে কর্মকতারা বিশ্বদ্যিালয়ের প্রশাসনকে না জানিয়ে দুইদিন ধরে তাদের আটকে রাখে।

এ বিষয়ে নিরাপত্তা দপ্তরের ইনর্চায মো. গোলাম কিবরিয়া বলেন, আমাদের কাছে শুক্রবার সকালে নাজিম উদ্দিন মোটর সাইকেল চোর বলে জোবায়ের ও বেলাল নামের দুই জনকে দিয়ে যায়। আমি এ বিষয়টি আমার উর্ধ্বতন কর্মকতা ও প্রক্টর অফিসে জানাই। তবে এ বিষয়ে প্রক্টরিয়ালবডি কোন কিছু জানে না বলে নিশ্চিত করেছে সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি নাজিম উদ্দিন বলেন, স্বরসতী পূজার দিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উত্তরা আবাসিক এলাকা থেকে আমার মোটর সাইকেল চুরি হয়। এ ঘটনায় নিরাপত্তা দপ্তরে চুরির লিখিত অভিযোগ করি। তবে গত দেড় মাসে মোটর সাইকেল উদ্ধার না হওয়ায়। বৃহস্পতিবার রাতে মোটর সাইকেল চোর জোবায়ের ও বেলাকে ধরতে পারি। পরে মোটর সাইকেল চুরি করেছে এমন স¦ীকারোক্তি দেয় তারা। তবে মারধরের কথা অস্বীকার করেন তিনি। এসময় মোটর সাইকেলে চুরির সাথে নিরাপত্তা কর্মীদের যোগসূত্র আছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী জোবায়ের বড় ভাই বলেন, বন্ধুদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অনুষ্ঠানে জোবায়ের গান শুনতে আসলে নাজিম তাকে মোটর সাইকেল চোর সন্দেহে আটক করে এবং বেধড়ক মারধর করে মোটর সাইকেল চুরি করেছে এমন স¦ীকারোক্তি আনতে মারধর করে তা মোবাইলে রেকর্ড করে। পরে শুক্রবার সকালে নিরাপত্তা দপ্তরে তাঁদের স্থানান্তর করে। বেআইনি ভাবে নিরাপত্তা দপ্তর দুইদিন ধরে তাদেরকে আটকে রাখে। নিরাপত্তা কর্মীদের উপর অভিযোগ করে তিনি আরো বলেন, আমার ভাই যদি চুরিও করে থাকে তাহলে বিশ্ববিদালয় প্রশাসন বা পুলিশের কাছে দিতে পারতো না কি? কেন তারা দুইদিন ধরে একটি কক্ষে আটকে রাখলো।

এ ব্যাপারে চবির নিরাপত্তা দপ্তরের প্রধান বজল হককে ফোন দেওয়া হলে সাংবাদিক পরিচয় শুনে তিনি ফোন কেটে দিয়ে বন্ধ করে রাখেন।

বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ আখতারুজ্জান বলেন, আজ সন্ধ্যায় আমাদেরকে জানানো হয়েছে আমরা তাদেরকে উদ্ধার করে হাটহজারী থানা পাঠিয়ে দিয়েছি।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন