ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬
৩৪ °সে

সিকৃবিতে শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন, ২৭ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত

সিকৃবিতে শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন, ২৭ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত
সিকৃবি শিক্ষার্থীকে বাস চাপা দিয়ে হত্যায় জড়িতদের ফাসির দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন। ছবি: ইত্তেফাক

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (সিকৃবি) শিক্ষার্থী মো. ওয়াসিম আফনানকে বাস চাপা দিয়ে হত্যার প্রতিবাদে সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছে শিক্ষার্থীরা। বিকালে ক্যাম্পাসে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। সিকৃবি কর্তৃপক্ষও ছাত্রদের আন্দোলন মেনে নিয়ে সকল ক্লাস বর্জন এবং পরীক্ষা স্থগিত ও একাডেমিক কাউন্সিলের সভাও স্থগিত ঘোষণা করে।

এ বিষয়ে সিকৃবি বায়োটেকনোলজি ও জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের সহকারী অধ্যাপক শরীফুল ইসলাম জানান, 'ওয়াসিম হত্যার প্রতিবাদে আমাদের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে আমরা আগামী ২৭ মার্চ পর্যন্ত সকল ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত করেছি। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওয়াসিম হত্যায় আইনী পদক্ষেপ হিসাবে সোমবার বিকালে মৌলভীবাজার থানায় একটি 'হত্যা' মামলা করেছে'।

সিকৃবি‘র প্রক্টরিয়াল বডির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মামলা দায়ের করতে নিহত ওয়াসিমের সাথে থাকা ১০ সহপাঠীকে নিয়ে রবিবার বিকালে মৌলভীবাজার থানায় প্রক্টর অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় কুন্ড বাদী হয়ে 'হত্যা' মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় গাড়ির চালক মো. জুয়েল (২৬) ও হেলপার মাসুক মিয়া (৩৮), সুপার ভাইজার সেবুলকে আসামি করা হয়। এজাহারে ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জেরে ওয়াসিমকে বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলা হয় মর্মে অভিযোগ আনা হয়। এজাহার দায়েরকালে ওয়াসিমের সঙ্গে ওই বাসে থাকা সিকৃবির ১০ শিক্ষার্থীও থানায় উপস্থিত ছিলেন।

মৌলভীবাজার সদর থানার ওসি সুহেল আহাম্মদ মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, 'ইতোমধ্যে দুই আসামিকে আটক করা হয়েছে। তাদের এইমামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বউদার পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো-১৪:১২৮০) বাসটিও জব্দ করা হয়েছে'। এদিকে মৌলভীবাজারের একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানান, নিহত ওয়াসিমের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ চলছে। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করতে না চাইলে, পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।

প্রক্টর অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় কুণ্ডু বলেন, 'ওয়াসিমকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এটি কোন দুর্ঘটনা নয়, ইচ্ছাকৃত হত্যাকাণ্ড। ওয়াসিমের পরিবার শোকে মুহ্যমান, তাই তারা হয়তো কোন মামলা করতে যাচ্ছেন না'।

আরও পড়ুন: রুয়েট ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দাবিতে ছাত্রলীগের স্মারকলিপি

এর আগে রবিবার সিকৃবির শিক্ষার্থীরা ওয়াসিম হত্যার দাবীতে নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে তারা পাঁচদফা দাবি জানিয়ে তিনদিনের কর্মসূচী ঘোষণা করে অবরোধ তুলে নেয়। ঘোষিত কর্মসূচীর সোমবার প্রথম দিনে বিশ্ববিদ্যালয় ছিল শোকে মুহ্যমান। সকল শিক্ষক-ছাত্র, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ পুরো ক্যা¤পাস যেন তমে অবস্থা বিরাজ করে। ক্লাসরুম গুলো ছিল ফাঁকা। সবার মুখে এক কথা: ‘ওয়াসিম হত্যাকারীদের ফাসি চাই।’ শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমরা চাই ওয়াসিম নিহতের ঘটনার পর থেকে যেন সড়কের নৈরাজ্য বন্ধ হোক'।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন