শুভ-তাসকিন আবারো!

শুভ-তাসকিন আবারো!
আরিফিন শুভ ও তাসকিন রহমান

দেশীয় গল্পে বিদেশি আমেজ ছিল ঢাকাই সিনেমা ‘ঢাকা অ্যাটাক’-এ। ছবিটি নিয়ে রীতিমতো হুলুস্থুল পড়ে গিয়েছিল চারদিকে। ২০১৭ সালের সবচেয়ে আলোচিত ও সফল এই সিনেমার কথা সবার মুখে মুখে। এরমধ্যেই প্রকাশ হলো মিশন এক্সট্রিম-এর ফার্স্টলুক। পোস্টারে প্রাধান্য পেয়েছেন আরিফিন শুভ ও তাসকিন রহমান। এই দু’জন অভিনেতাই ঢাকা অ্যাটাকে দারুণভাবে প্রশংসিত হয়েছিলেন। তাই এ চলচ্চিত্রের প্রথম পোস্টারটি নিয়ে দর্শকদের মধ্যে আগ্রহ দেখা গেছে। প্রকাশের পরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করতে দেখা যায়। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করছেন সানী সানোয়ার ও ফয়সাল আহমেদ।

মিশন এক্সট্রিম-এর গল্পজুড়ে রয়েছে আরিফিন শুভ ও তাসকিন রহমানের বিচরণ। আগামী ঈদে বড়পর্দায় আসছে সিনেমাটি। চলচ্চিত্রটির পরিচালক সানি আনোয়ার বলেন, ‘আরিফিন শুভ এই সিনেমায় একজন চৌকস অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। শুটিং শুরু করার আগে ৯ মাস গ্রুমিং করেছেন তিনি। ডামি ব্যবহার না করে নিজেই শট দিয়েছেন। বেশ কয়েকবার আহতও হয়েছেন। কাজের প্রতি তার ভালোবাসা আমাদেরও আগ্রহ বাড়িয়ে দিয়েছে। শুধু শুভ নয়, পুরো টিম অনেক বেশি আত্মবিশ্বাস নিয়ে কাজ করছে। আমরাও অ্যাকশন দৃশ্যগুলোতে ৬টি ক্যামেরা ব্যবহার করেছি। গল্পের প্রয়োজনে সঠিক লোকেশন, অ্যারেঞ্জমেন্ট নিয়ে কাজ করেছি।’

এদিকে মিশন এক্সট্রিম প্রসঙ্গে তাসকিন বলেন, ‘ঢাকা অ্যাটাকের পর আবারো খল-চরিত্রে অভিনয় করেছি। বিষয়টি নিয়ে আমি বেশ উচ্ছ্বসিত। আমি সবসময় ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করতে পছন্দ করি। এখানেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। দারুণ একটি জার্নি শেষে দর্শকদের মতামতের অপেক্ষা করছি।’

গত ২০ মার্চ ঢাকায় মিশন এক্সট্রিম ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল, চলে মে মাস পর্যন্ত। সিনেমাটিতে আরিফিন শুভর সঙ্গে প্রথমবার জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী। যদিও পোস্টারে তার উপস্থিতি ছিল একেবারেই কম।

এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন সাদিয়া নাবিলা, সুমিত সেনগুপ্ত, শতাব্দী ওয়াদুদ, মাজনুন মিজান, ইরেশ জাকের, মনোজ প্রামাণিক, আরেফ সৈয়দ, রাশেদ মামুন অপু, এহসানুল রহমান, দীপু ইমামসহ অনেকে। কপ ক্রিয়েশনের ব্যানারে নির্মিত বাংলাদেশের দ্বিতীয় পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার ‘মিশন এক্সট্রিম। ক্রাইম, থ্রিল, সাসপেন্স ও অ্যাকশন নির্ভর একটি মৌলিক গল্পের ওপর ভিত্তি করে সিনেমাটির নির্মিত হচ্ছে বলে জানান নির্মাতা।

সিনেমাটি পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট, তথা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সিটিটিসি’র কিছু শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন সানী সানোয়ার নিজেই। এর আগে ২০১৭ সালে সানী সানোয়ারের গল্পে ঢাকা অ্যাটাক নির্মাণ করেছিলে পরিচালক দীপঙ্কর দীপন। সিনেমাটি ৪টি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছে।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত