১৩তম আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উত্সব

৩৯ দেশের ১৭৯টি শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

৩৯ দেশের ১৭৯টি শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শনী
আগামী ২৪ জানুয়ারি থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উত্সব বাংলাদেশ ২০২০’। ছবি: সংগৃহীত

প্রতিবছরের মতো এবারো ‘চিলড্রেন’স ‘ফিল্ম সোসাইটি বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে আগামী ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উত্সব বাংলাদেশ ২০২০’। ‘ফ্রেমে ফ্রেমে আগামী স্বপ্ন’—শ্লোগান নিয়ে এই উত্সবটি ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

ঢাকায় মূল উত্সব কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহূত হবে কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির শওকত ওসমান মিলনায়তনটি। উদ্বোধনী দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১১টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা ও সন্ধ্যা ৬টায় মোট ৪টি প্রদর্শনী হবে। এবারের উত্সবে ঢাকাতে মোট ৫টি ভেন্যুতে ৩৯ দেশের ১৭৯টি শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। প্রতিটি প্রদর্শনীতে একাধিক শিশুতোষ চলচ্চিত্র দেখানো হবে। উত্সবের সকল প্রদর্শনী অভিভাবক, শিশু-কিশোরসহ সবার জন্য উন্মুক্ত।

এবারো উত্সবের অন্যতম আকর্ষণীয় বিভাগ হিসেবে থাকছে বাংলাদেশি শিশুদের নির্মিত প্রতিযোগিতা বিভাগটি। এই বিভাগে এবার ৪৮টি চলচ্চিত্র জমা পড়েছিল, যার মধ্য থেকে নির্বাচিত ১৮টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এই ১৮টি চলচ্চিত্রের ৫টি চলচ্চিত্র পাবে পুরস্কার।

আরও পড়ুন: মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অনেক অমুক্তিযোদ্ধা!

পুরস্কার হিসেবে থাকছে ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট ও আর্থিক প্রণোদনা। পুরস্কারের জন্য গঠিত ৫ সদস্যের জুরি বোর্ডের সবাই শিশু-কিশোর। অর্থাত্ ছোটদের নির্মিত শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রগুলো বাছাই করবে ছোটরাই।

প্রতিযোগিতা বিভাগে যাদের ছবি দেখানো হবে তাদের উত্সব কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিনিধি হিসেবে উত্সবে অংশ নেওয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

এবারো ‘ইয়ং বাংলাদেশি ট্যালেন্ট’ শীর্ষক বিভাগটি রয়েছে, যেখানে ১৯ থেকে ২৫ বছর বয়সী তরুণ নির্মাতারা অংশ নিয়েছে। এছাড়াও মুজিব বর্ষ উপলক্ষে রয়েছে ‘স্পেশাল ফিল্ম কম্পিটিশন বিভাগ’, যেখানে বিষয় হলো, প্রজন্মের চোখে বঙ্গবন্ধু’। একইসঙ্গে রয়েছে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা বিভাগ। এ বিভাগে উত্সব কমিটির দ্বারা মনোনীত বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশের মোট ১০৫টি চলচ্চিত্র অংশ নিচ্ছে। উত্সবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি হবে ২৪ জানুয়ারি বিকেল ৪টায় কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির শওকত ওসমান মিলনায়তনে।

ইত্তেফাক/এসইউ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত