‘দুই দশক পার করে এখনো প্রতিটি কাজ সমান চ্যালেঞ্জ নিয়ে করি’

‘দুই দশক পার করে এখনো প্রতিটি কাজ সমান চ্যালেঞ্জ নিয়ে করি’
নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

ক্যারিয়ারের ২০ বছর পার করলেন টিভি নাটকের জনপ্রিয় নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী। ২০০১ সালে প্রথম নির্মিত নাটক ‘শেষ বেলায়’ দিয়ে নির্মাতা হিসেবে পথচলা শুরু হয়। তার সমসাময়িক অনেকের ক্যারিয়ার অনেক আগে থেমে গেলেও এখন পর্যন্ত নিয়মিত নাটক নির্মাণ করে যাচ্ছেন তিনি।

দুই দশক পার করে নিজের সফলতা ও ব্যর্থতা প্রসঙ্গে তিনি ইত্তেফাককে বলেন, ‘আমি প্রতিটি কাজ নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে করার চেষ্টা করেছি। দুই দশক পার করে এখনো প্রতিটি কাজ সমান চ্যালেঞ্জ নিয়ে করি এবং দর্শকদের ভালোলাগার জায়গাটা ধরে রাখতে পেরেছি। একজন নির্মাতা হিসেবে আমার কাছে এটি সবচেয়ে সফলতা মনে হয়। আর এত বছর কাজ করে একজন নির্মাতার আর্থিকভাবে যে জায়গা থাকার কথা আমি সেখানে নেই। টাকার জন্য না ভেবে, কাজটা ভালোবেসে করার চেষ্টা করেছি। এটা ব্যর্থতা নাকি জানি না।’

নাটকের সুসময়ে নির্মাণ শুরু করেন চয়নিকা। আর বর্তমানে নাটক নিয়ে হচ্ছে সমালোচনা ও বিতর্ক। দীর্ঘ ক্যারিয়ার থেকে এখনকার নাটকের অবস্থা প্রসঙ্গে চয়নিকা বলেন, ‘একটা সময় চ্যানেলের প্রিভিউ কমিটি ছিল। যারা নাটকের মান বিচার করে প্রচার করতো। কিন্তু এখন পুরো বিষয়টি মার্কেটিংয়ের হাতে। ব্যবসার অবশ্যই প্রয়োজন আছে। কারণ এখানে অর্থের বিষয়টিও জড়িত। কিন্তু এখানে সমন্বয় প্রয়োজন আমার মনে হয়। এখন যেহেতু মার্কেটিং বিভাগ নাটক প্রচারের দায়িত্বে আছে তাই সেখানে শিল্পের চেয়ে ব্যবসার গুরুত্বটা আগে দেওয়া হচ্ছে। এ জন্যই নাটকের অনেকটা বাঁধভাঙা অবস্থা। এই জায়গাটা আমাদেরই ঠিক করতে হবে।’

চয়নিকা ক্যারিয়ারে ২০ বছর পার করে শুরু করেছেন সিনেমা নির্মাণ। তার প্রথম পরিচালিত সিনেমা ‘বিশ্ব সুন্দরী। জুটি বেঁধেছে সিয়াম আহমেদ ও পরীমনি। ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা স্বাভাবিক হলে মুক্তি পাবে সিনেমাটি। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অনেকের ভালোবাসা আর সহযোগিতা দিয়ে পাড়ি দিয়েছেন চয়নিকা চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘দর্শকদের প্রতি কৃতজ্ঞতার তো শেষ নেই। তাদের জন্যই আমি। এছাড়া কাছের কয়েকজনের নাম বলতে চাই। লাইট অ্যান্ড শ্যাডোর মুজিবুর রহমান, তমালিকা, মাহফুজ আহমেদ, ইমদাদুল হক মিলন, তুহিন বড়ুয়া। তাদের অনুপ্রেরণায় আমি আজ এই পর্যন্ত।’

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত