একাধিক চলচ্চিত্রে নির্মাতা-শিল্পীর সমন্বয়ের অভাব

একাধিক চলচ্চিত্রে নির্মাতা-শিল্পীর সমন্বয়ের অভাব
শাকিব খান ও মাহী [ছবি: সংগৃহীত]

চলচ্চিত্রে এখন চলছে মাধ্যম সংকট। মানুষ করোনার এই দীর্ঘ সংকটে সিনেমা হলের রাস্তা ভুলে গেছে। সবাই ডুবে আছে যার যার স্মার্ট ফোনে। তাই বিদেশি বিভিন্ন ওটিটি প্লাটফর্মগুলো এরই ভেতরে বাণিজ্যিকভাবে দারুণ সফল হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে গত ১ বছরে একাধিক অ্যাপস চালু হওয়ার কথা থাকলেও একটিও অফিসিয়ালি নেই এখন অবধি।

গত কয়েকবছর সিনেমা হল ক্রমান্বয়ে কমে যাওয়ার কারণে যে হা-হুতাশ দেখা দিয়েছে। তার থেকেও এখন বেশি দেখা দিচ্ছে মাধ্যম ও সমন্বয় সংকট। সম্প্রতি নির্মাতা অনন্য মামুন আই থিয়েটার নামের একটি নতুন প্লাটফর্ম চালু করেছে। কিন্তু সেখানে উল্লেখযোগ্য তারকাদের কোনো উপস্থিতি নেই। সবচেয়ে অবাক করার মতো বিষয় হলো সম্প্রতি অনন্য মামুন তার নিজের পরিচালনায় নবাব এলএলবি নামে একটি ছবির শুটিং শেষ করলেন। সেটিই এই ওটিটি প্লাটফর্মে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা। কিন্তু অনুষ্ঠানে তার নিজের শিল্পী অর্থাৎ শাকিব খান, মাহী, স্পর্শিয়া কেউ যাননি।

অথচ মাত্র ক’দিন বাদেই ছবিটির মুক্তি। এখন ছবি মুক্তির আগেই ছবির তারকারা ছবির নির্মাতার অণিয়ম নিয়ে নানা কথা বলছেন। নির্মাতাও পাল্টা কথা বলছেন। কিন্তু এই অভিযোগ পাল্টা অভিযোগে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে মূলত ছবিটির। আমাদের দেশে এই চিত্র একেবারে নতুন নয়। মাত্র বছরখানেক আগেই শাকিব খানের নোলক ছবি নিয়ে এমন ঘটনা ঘটেছে। একই সময়ে শাকিব খানের আরেকটি ছবি মুক্তি পাওয়ায় শাকিবের মুখে নোলক ছবিটির নাম শোনা যায়নি। তাই কোটি টাকা বাজেটের এসব লগ্নি সংশ্লিষ্ট তারকারাই যখন নিজেদের মনে করেন না তখন ছবিটির ব্যবসা মুখ থুবড়ে পড়ে।

এদিকে নির্মাতাদের কমিটমেন্টের অভাবে তারকারাও নিজেদের স্বচ্ছন্দে কাজ করতে পারেন না। তাই দেখা যায় ছবি শুরু হয় তারকা-নির্মাতার হাসিমুখ দিয়ে। কিন্তু শেষ না হতেই দুই দল দুই পক্ষে চলে যায়। সিনেমার ব্যবসায় তখন হাহাকার নামে।

পিআর বা ছবির ক্যাম্পেইন এই ভার্চুয়াল বাজারে কতটা জরুরি তা যারা বোঝেন একমাত্র তারাই এগিয়ে থাকবেন। যেমন জয়া আহসান প্রযোজিত দেবী ছবিটি। প্রযোজক যেখানে ছবির প্রচারের জন্য টানা ১ মাস অন্য কোনো কাজ হাতে নেননি। তার ছবির কলাকুশলীদেরও প্রচারের কাজে লাগিয়েছেন। কিন্তু বাংলাদেশের ৮০ ভাগ ছবিই এখন রিলিজের আগে ছবির টিম ক্যাম্পেইন হয় না। বিচ্ছিন্নভাবে অল্প কিছু প্রচারে ছবিটির নামও মানুষের মুখে মুখে ছড়ায় না। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো ছবিটি রিলিজের পর যে এ সকল প্রচার খুবই জরুরি সেটিও অনেকে মনে করেন না।

আগামী ১১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে চয়নিকা চৌধুরীর পরিচালনায় প্রথম ছবি ‘বিশ্বসুন্দরী’। ছবিতে প্রথমবারের মতো জুটি বাঁধলেন সিয়াম ও পরীমনি। এ প্রসঙ্গে চয়নিকা চৌধুরী বলেন, ‘আমরা একসঙ্গে কাজ করতে করতে এক ধরনের পারিবারিক হয়ে গেছি। তাই ছবিটির ক্যাম্পেইনের ক্ষেত্রে সকল তারকা মিলেই দারুণ দর্শক-শ্রোতাদের কাছে থাকবো। আসলে এখনকার এই ব্যস্ত সময়ে আমরা ডিজিটালি প্রচারে খুব বেশি মনোযোগ দিচ্ছি। সেক্ষেত্রে আমরা এরই ভেতরে কিছু প্ল্যান করে রেখেছি। তবে অফিসিয়ালি কিছু পিআর বা কনসালটেন্সি সার্ভিস বাংলাদেশে তৈরি হওয়া উচিত বলে মনে করি।’

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত