‘অমর একুশে বইমেলা’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন ১৭ জানুয়ারি

‘অমর একুশে বইমেলা’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন ১৭ জানুয়ারি
বইমেলা। ফাইল ছবি

‘অমর একুশে বইমেলা ২০২১’ বিষয়ে আগামী ১৭ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছে বাংলা একাডেমি। আগামী রবিবার দুপুর ২টায় একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীন এবং বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী উপস্থিত থাকবেন।

দেশে করোনা সংক্রমণ শুরুর পর আর সবকিছুর মতো বই বিক্রিও বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। প্রকাশক, বই বিক্রেতারা নিদারুণ সংকটের মুখোমুখি হন। প্রণোদনা চেয়ে দেন-দরবার করেছিলেন প্রকাশকরা। কিন্তু তা আলোর মুখ দেখেনি। কোনো কিছু না হওয়ায় শেষমেশ বইমেলাকে ঘিরেই আশা বুনছিলেন প্রকাশকরা। সেই বইমেলা আয়োজনও এখন অনিশ্চিত।

বইমেলার জন্য দুই মাসের প্রস্তুতি খুব বেশি সময় বলে জানাচ্ছেন প্রকাশকরা। তারা বলছেন, এতে বইমেলা মার্চের আগে আয়োজন করা যাবে না। এতে একুশে বইমেলার আবহ রইবে না।

গত কয়েক দিন ধরেই অমর একুশে বইমেলা হবে কি হবে না—ঘুরপাক খাচ্ছিল সেই আলোচনা। মেলার আয়োজক বাংলা একাডেমিও জনস্বার্থ বিবেচনায় বইমেলায় স্থগিতের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিল। সেই প্রেক্ষাপটে মুখে মুখে রটে গিয়েছিল এবার আর বইমেলা সরাসরি হবে না। ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হবে একুশে গ্রন্থমেলা। পরে ভার্চুয়াল আয়োজন থেকে পিছিয়ে আসে বইমেলার আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি।

এর আগে গত ১০ ডিসেম্বর মেলার আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমির নির্বাহী পরিষদের বৈঠকে ২০২১ সালের অমর একুশে বইমেলা সাময়িকভাবে স্থগিত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। গণমাধ্যমে এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন লেখক, প্রকাশক থেকে সাধারণ পাঠক।

এ পরিস্থিতিতে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজীর সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রকাশকদের দুই সংগঠন বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির নেতৃবৃন্দ। বৈঠক শেষে একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী জানিয়েছিলেন, আসন্ন অমর একুশে গ্রন্থমেলা বাতিলের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা আমাদের নির্বাহী পর্ষদের বৈঠকে আলোচনার ভিত্তিতে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কাছে কিছু প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছিল। সে প্রস্তাবনায় বইমেলা করোনার কারণে না হলেও অমর একুশে অনুষ্ঠানমালা ভার্চুয়ালি করার সিদ্ধান্তের কথা মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়েছিল।

এ বিষয়ে জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ বলেন, আলোচনার পর লেখক, প্রকাশক ও পাঠকদের সরাসরি উপস্থিতিতেই অমর একুশে বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত