‘সাঁওতালদের নিয়ে নির্মিত ছবিটির জন্য অনেক কষ্ট করেছি’

‘সাঁওতালদের নিয়ে নির্মিত ছবিটির জন্য অনেক কষ্ট করেছি’
দিলারা জামান ও শিপন। ছবি : সংগৃহীত।

দেশের বর্ষীয়ান অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম দিলারা জামান। অসংখ্য টিভি নাটক ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সুনাম কুড়িয়েছেন তিনি। আগামী ঈদুল ফিতরে আসছে তার ছবি ‘সুজুকি’। এই ছবিটি মূলত আদিবাসী সাঁওতালদের সংস্কৃতি-ঐতিহ্য, ইতিহাস, জাতিগত বৈষম্য, তাদের দুঃখ–দুর্দশা, প্রেম–ভালোবাসা নিয়ে তৈরি হয়েছে।

এই ছবিতে কাজ প্রসঙ্গে দিলারা জামান বলেন, ‘এ সিনেমার গল্পটা খুবই দুর্দান্ত, আর আমার চরিত্রটাও। সাঁওতাল এক নারীর চরিত্রে অভিনয় করেছি। খুবই চ্যালেঞ্জিং একটা চরিত্র। অনেক কষ্ট করেছি। চরিত্রের প্রয়োজনে পুরো শরীরে কালো মেকআপ দিয়ে সারাদিন থাকতে হয়েছে। তবে কষ্ট হলেও কাজটা করে ভালো লেগেছে।’

দেশা দ্যা লিডার খ্যাত নায়ক শিপন ও নবাগতা নায়িকা নীপা ‘সুজুকি’ ছবিতে জুটি বেঁধেছেন।

নির্মাতা সোয়েব সাদিক সজীবের পরিচালনায় প্রথম সিনেমাটি আগামী ঈদুল ফিতরে দর্শকদের কাছে আসবে বলে জানিয়েছেন সিনেমাটির প্রযোজক। রাজশাহীর বরেন্দ্রভূমি, দিনাজপুর, রংপুর ও বগুড়া জেলায় সাঁওতাল পল্লীতে হয়েছে এই ছবি শুটিং। মাহি কথাচিত্রের ব্যানারে সিনেমাটির প্রযোজনা করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান।

এ ছবিতে বিভিন্ন চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন শহীদুল আলম সাচ্চু, আরমান পারভেজ মুরাদ, কচি খন্দকার, কাজী রাজু, কোহিনুর আলম, কাজী লায়লা বিলকিস, সাবিনা ইয়াসমিন, লিমন, মিলনসহ প্রায় ৩০ জন সাঁওতালি শিল্পী। সিনেমায় গান করেছে বাংলাদেশে একমাত্র সাঁওতালি ব্যান্ড সেঙ্গেল।

নায়ক শিপন মিত্র ‘সুজুকি’ প্রসঙ্গে বলেন, ‘সাঁওতালদের গ্রাম আগে কখনো দেখিনি। সেখানে বাড়ি, মাঠ ও খেত বেশ দূরে দূরে। মানুষগুলো অনেক মিশুক। অনেক দিন পর মুক্ত আকাশের নিচে বেশ আনন্দে কাটিয়েছেন তিনি।’

নির্মাতা শোয়েব সাদিক বলেন, ‘সাধারণত আমাদের সিনেমার মহরত হয় ঢাকায়। কিন্তু আমরা যে অঞ্চলের মানুষের গল্প বলতে চলেছি বা যাদের গল্প বলেছি, তাদের সাথেই শুভ মহরতের আনন্দ ভাগ করেছি এবং গানের শুটের মাধ্যমে সেখানেই শুটিং শেষ করেছি। আমরা সব সময় বলি আমাদের চলচ্চিত্রে মৌলিকতার অভাব। আশা করছি ‘সুজুকি’ তেমন অভিযোগ থেকে রেহাই দিবে এবং দর্শকপ্রিয়তা পাবে। আমি চেষ্টা করেছি প্রতিটি দৃশ্যে একটা ম্যাসেজ দিতে।’

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x