করোনায় মারা যাওয়া নির্মাতা মাসুদের দাফন সম্পন্ন

করোনায় মারা যাওয়া নির্মাতা মাসুদের দাফন সম্পন্ন
নির্মাতা মাসুদ কায়নাত। ছবি: সংগৃহীত

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন ‘বেইলী রোড’ খ্যাত নির্মাতা মাসুদ কায়নাত। সোমবার (৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় তার মৃত্যু হয়। রাতেই তার মরদেহ নিয়ে তার স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়ে, ছোট ভাইসহ নিকট আত্মীয়রা রওনা হন গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মুরাদনগরে। মঙ্গলবার সকাল ৭টায় সেখানে পৌঁছান তারা। আজ বাদ জোহর পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

বিজ্ঞাপন নির্মাতা মাসুদ কায়নাত ২০১১ সালে বেইলী রোড সিনেমাটি করে আলোচনায় আসেন। ‘বেইলী রোড’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয় হিরো নিলয় আলমগীরের। তার বিপরীতে অভিনয় করেন মডেল আঁচল। ‘বেইলী রোড’ ছবিতে মিলা-বাপ্পার গাওয়া ‘দেহ গেলে কি যায়’ গানটি এরই মধ্যে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এই ছবির মাধ্যমেই প্রথম চলচ্চিত্রে প্লে-ব্যাক করেন মিলা।

নির্মাতা মাসুদ কায়নাত বড় পর্দায় নতুন হলেও মিডিয়ায় বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাণের জন্য বেশ সুপরিচিত। এ পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাণ করেছেন তিনি। এছাড়া নির্মাতা হিসেবে মাসুদ কায়নাত-ই প্রথম বাংলাদেশি যিনি হিন্দি ভাষায় বিদেশী পণ্যের বিজ্ঞাপন দেশের বাইরে নির্মাণ করে আলোচিত হন।

ছোট পর্দার একজন উপস্থাপক হিসেবেও তাকে চেনেন অনেকেই। বৈশাখী টেলিভিশনে প্রচারিত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘লুক-থ্রো’ এবং এটিএন বাংলায় প্রচারিত টকশো ‘অন্যচোখে’-এর গ্রন্থনা ও উপস্থাপনায় তাকে দেখা গেছে। তিনি নিরাপদ সড়ক চাইয়ের (নিসচা) প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনকে নিয়েও একটি (বিএসআরএম প্রতিষ্ঠানের) টিভি বিজ্ঞাপন নির্মাণ করেন যা বেশ প্রশংসনীয় হয়েছিলো।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x