রোজার মাস জুড়ে সাঈদ বাবু-বৃষ্টির ‘পরকাল’

রোজার মাস জুড়ে সাঈদ বাবু-বৃষ্টির ‘পরকাল’
ছবি: সংগৃহীত

বৈশাখী টেলিভিশনের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক টিপু আলম মিলনের গল্পে আসছে পবিত্র রমজানের ধারাবাহিক নাটক ‘পরকাল’। পহেলা রমজান থেকে বৈশাখী টিভিতে প্রচার হবে প্রতিদিন বিকাল ৫টা ১৫ মিনিট ও রাত ১১টায়।

আকাশ রঞ্জনের চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় নাটকটিতে অভিনয় করেছেন সাঈদ বাবু, বৃষ্টি ইসলাম, আব্দুল্লাহ রানা, লীনা আহমেদ সুফিয়া, মিষ্টি মারিয়া, মাসুম বাসার, আমিন আজাদ, গুলশান আরা, শিখা, অনামিকা, আফসানা নওমি ও ইলমাসহ অনেকে।

পরকাল নাটকের গল্প গড়ে উঠেছে খালেক সাহেবের পরিবার আর আশপাশের মানুষকে ঘিরে। খালেক সাহেবের সংসারে সবকিছু থাকার পরেও সুখ নেই। এর কারণ পরিবারে তিনি এবং বড় ছেলের বউ ছাড়া সবাই বেপরোয়া। রমজান মাসেও কারো মধ্যে যেন শৃঙ্খলা নেই। এ রকম আরো কিছু পরিবার রয়েছে যারা ইহকালের সুখ শান্তি নিয়ে ব্যস্ত, পরকাল নিয়ে ভাববার সময় যেন কারো নেই। আবার সমাজে এক ধরনের মানুষ রয়েছেন যারা রোজা কিংবা ইফতার বিষয়টা নিয়ে লোক দেখানো কিছু কর্মকাণ্ড করেন। মোট কথা পবিত্র রমজানের গুরুত্ব, মাহাত্ম্য আর মানবিক বিষয়ই পরকাল নাটকের মূল উপজীব্য।

গল্পকার টিপু আলম মিলন বলেন, রোজা হলো সংযমের মাস। এ মাস এলেই আমরা সংযমী না হয়ে বরং অতিমাত্রায় অসংযমী হয়ে যাই। রমজানে গরীব দুঃখী প্রতিবেশীর হক আদায় না করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেওয়া এবং লোক ঠকানো যেন নিয়মে পরিণত হয়েছে। আবার সেহরি কিংবা ইফতারে এলাহি সব আয়োজনে চলে লোক দেখানো প্রতিযোগিতা। সেহরি পার্টির নামে রোজার পবিত্রতা নষ্ট করার প্রয়াসও চোখে পড়ার মতো। চারপাশের এ অনিয়মগুলো তুলে ধরাই ‘পরকাল’ নাটকের মূল বিষয়। রোজা রোজাদারদের যেমন মানসিক প্রশান্তি এবং পবিত্রতা দান করে তেমনি স্বাস্থ্য সুরক্ষায়ও নিয়ামক হিসেবে কাজ করে। রোজা যে সাধনার মাস, স্রষ্টার নৈকট্য লাভের মাস, সব পাপ কার্য থেকে নিজেকে মুক্ত রাখার মাস, তা বেমালুম ভুলে যাই আমরা। ইহকালের আরাম আয়েশে মত্ত থেকে পরকালের কথা একবারেই ভুলে যাই। সেসব মানুষকে সচেতন করার জন্যই ‘পরকাল’ নাটক। আমার নাটক দেখে তারা কিছুটা হলেও যদি সচেতন হন, সংযমের পরিচয় দেন, রোজার নির্দেশনাগুলো পালন করেন তাহলেই আমার লেখা সার্থক হবে বলে আমি মনে করি।’

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x