কবরী কি টিকা নিয়েছিলেন? 

কবরী কি টিকা নিয়েছিলেন? 
সারাহ বেগম কবরী। ছবি: সংগৃহীত

করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ফুসফুসে শতভাগ সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় মারা যান সাবেক সংসদ সদস্য ও অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী। বাংলাদেশে করোনার টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে গত জানুযারি মাসে। ইতিমধ্যে টিকার দ্বিতীয় ডোজ চলছে। তবে টিকা দেওয়া শুরু হওয়ার পর কবরী টিকা নিয়েছিলেন কী না এমন কোন তথ্য এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

গত ২৭ জানুয়ারি একজন নার্সকে টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে প্রাথমিক করোনার টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয় বাংলাদেশে। ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সদ্য প্রয়াত বাংলা সিনেমার পর্দা কাঁপানো অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীর গত ৫ এপ্রিল কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্ত হয়। সেদিন রাতেই তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আইসিইউ শয্যা খালি না থাকায় পরে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে নেওয়া হয়।

আমাদের ‘সারেং বৌ’ কিংবা পার্বতী

সেখানে শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২টা ২০মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ অভিনেত্রীর মৃত্যু হয়। শনিবার (১৭ এপ্রিল) সকালে অভিনেত্রী কবরীর মৃত্যুর বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের এ তথ্য জানান গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফারুক আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘তাকে (কবরী) যখন প্রথমে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তখন তার ফুসফুসের ৬৪ শতাংশ সংক্রমিত ছিল। আমাদের এখানে ভর্তি হওয়ার পর পোর্টেবল এক্স-রে দিয়ে আমরা পরীক্ষা করি। এ সময় তার ফুসফুসের শতভাগ সংক্রমিত ছিলো।’

লাইফ সাপোর্টে কবরী 

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এখানে তাকে নিয়ে আসার পর আমরা আইসিইউতে তার পরীক্ষা করি। তার দুই ফুসফুসেই শতভাগ সংক্রমণ ছিল। এই সংক্রমণের ফলেই তার মৃত্যু হয়েছে। লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় উনি অক্সিজেন মেইনটেইন করতে পারছিলেন না।’

ডা. ফারুক বলেন, ‘গতকাল ( ১৬ এপ্রিল) দুপুরের পর থেকে ওনার ব্লাড প্রেশার ও হার্ট রেটের পরিবর্তন হতে থাকে। এ জন্য আমরা তাকে সব রকম বিশেষায়িত চিকিৎসা দিয়েছি। কিন্তু তারপরও উন্নতি হয়নি। একপর্যায়ে রাত ১২টা ২০ মিনিটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।’

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x