যুক্তরাষ্ট্রে মূূল প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া হচ্ছে না মিথিলার

যুক্তরাষ্ট্রে মূূল প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া হচ্ছে না মিথিলার
ছবি: সংগৃহীত

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২০’ প্রতিযোগিতায় সেরা হলেও আগামী ১৬ মে যুক্তরাষ্ট্রে ‘মিস ইউনিভার্স ২০২০’ প্রতিযোগিতার ৬৯তম আসরে অংশ নিতে পারবেন না তানজিয়া জামান মিথিলা। মঙ্গলবার বিকেলে ইত্তেফাক অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের ন্যাশনাল ডিরেক্টর শফিকুল ইসলাম।

শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘লকডাউনের কারণে সব প্রস্তুতি নিতে পারিনি। ভিসা প্রসেসিং শেষ হয়নি। মিস ইউনিভার্স থেকে কিছু শর্ত দেয়া হয়েছিল। বাংলাদেশের সৌন্দর্য নিয়ে একটি ভিডিও নির্মাণের। কিন্তু করোনা ও লকডাউনে কারণে সেই শর্ত পূরণ করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া ন্যাশনাল কস্টিউমেও ঘাটতি রয়েছে। লকডাউন বাড়িয়ে ২৮ তারিখ নেয়ার সরকারি অফিস বন্ধ।'

তিনি বলেন, ‘সবকিছু জানিয়ে মিস ইউনিভার্স কর্তৃপক্ষকে মেইল করে জানাই। তারা আমাদের আবেদন গ্রহণ করে ফিরতি মেইল দিয়েছে। তাই এবার বাংলাদেশ অংশ নিচ্ছে না, মিথিলাও যাচ্ছেন না। শুধু বাংলাদেশ নয়- ক্রোয়েশিয়া, বুলগেরিয়া ও মায়ানমারের মতো কয়েকটি দেশ করোনার কারণে আসন্ন মিস ইউনিভার্সের মঞ্চে অংশ নিতে পারছে না বলে জেনেছি। পরবর্তী বছর বাংলাদেশ অংশ নেবে। আগেই আমরা লাইসেন্স কিনে রেখেছি।’

মিথিলা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‌‘অংশ নিতে না পারার অনেকগুলো কারণ আছে। প্রথম কারণ হলো- আমি করোনা ভ্যাকসিন নিতে পারিনি এখনও। দ্বিতীয়ত, আমরা ভিসা ফেসের জন্য যে আবেদন করেছিলাম, লকডাউনের কারণে সে তারিখ ক্যানসেল হয়েছে। প্রি-প্রোডাকশন ভিডিও তৈরি হয়নি। এমনকি ন্যাশনাল কস্টিউমও তৈরি হয়নি। ৫ এপ্রিল থেকে তো মূলত আমাদের লকডাউনের ঘোষণা আসে। যে কারণে আমরা ন্যাশনাল কস্টিউমসহ কোনও ভিডিওর শুট করতে পারিনি। ভিসা আবেদনের আগে যে কাজগুলো করতে হয় সেগুলোর কিছুই করতে পারিনি। পরে তো ভিসা অফিস ভিসা ফেসের ডেটই বাতিল করেছে।’

এদিকে বিউটি পেজেন্টদের নিয়ে কাজ করা ‘সাশ ফ্যাক্টর’ নামের অনলাইন ম্যাগাজিনের ফেসবুক পেজ থেকে জানানো হয়েছে, ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২০ তানজিয়া জামান মিথিলাকে ঘিরে অনেক বিতর্ক দেখা যাচ্ছে। অনেক বাংলাদেশি বিউটি পেজেন্টরা মিথিলাকে নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন এবং তাকে মূল প্রতিযোগিতার জন্য সাপোর্ট করছেন না। এ কারণে মিস ইউনিভার্স ওয়েবসাইট থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে তার নাম।’

৩ এপ্রিল রাতে রেডিসন ব্লু ঢাকা ওয়াটার গার্ডেনের বলরুমে মিথিলাকে মুকুট পরিয়ে দেন বলিউড অভিনেত্রী চিত্রাঙ্গদা সিং। প্রথম রানারআপ ফারজানা ইয়াসমিন অনন্যা এবং দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন ফারজানা আকতার এ্যানি। শুধু সেরার স্বীকৃতিই নয়, বিশেষ যোগ্যতা অনুযায়ী দেওয়া পাঁচটি স্বীকৃতির মধ্যে মিস বডি বিউটিফুল নির্বাচিত হন মিথিলা। প্রথম রানারআপ ফারজানা ইয়াসমিন অনন্যা মিস মিনজেনিয়ালিটি স্বীকৃতি পেয়েছেন। এছাড়া মিস শাইনিং স্টার আপোনা চাকমা, মিস ফটোজেনিক নিদ্রা দে এবং মিস ট্যালেন্টেড হিসেবে নির্বাচিত হন তৌহিদা তাসনিম তিফা।

প্রতিযোগিতার এবারের মূল স্লোগান ছিল ‘আমার আত্মবিশ্বাস, আমার সৌন্দর্য’। দেশ ও দেশের বাইরের বাংলাদেশি মিলিয়ে ৯ হাজার ২৫৬ জনেরও বেশি তরুণী এতে অংশগ্রহণ করেন। গত জানুয়ারি থেকে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। প্রাথমিক বাছাইয়ের পরে অডিশনের জন্য ডাক পান ৫০০ জন প্রতিযোগী।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x