স্টার সিনেপ্লেক্সে নতুন ‘কনজ্যুরিং’ এবং এমা স্টোন!

স্টার সিনেপ্লেক্সে নতুন ‘কনজ্যুরিং’ এবং এমা স্টোন!
স্টার সিনেপ্লেক্সে নতুন ‘কনজ্যুরিং’ এবং এমা স্টোন!

করোনা মহামারির মধ্যেই চেনা রূপে ফিরছে হলিউড। গত মাসে খুলেছে উত্তর আমেরিকার প্রেক্ষাগৃহগুলো। দর্শকও হলমুখী হয়েছেন। এরই মধ্যে মুক্তি পাওয়া কিছু ছবির বক্স অফিস রিপোর্ট আশাব্যঞ্জক।

গত ৪ জুন যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পেয়েছে ‘দ্য কনজ্যুরিং: দ্য ডেভিল মেইড মি ডু ইট’। মুক্তির প্রথম দিনেই প্রায় ১ কোটি ডলার আয় করে রেকর্ড গড়েছে ছবিটি। এর আগে ২৮ মে মুক্তি পায় অস্কারজয়ী এমা স্টোন অভিনীত ‘ক্রুয়েলা’। এটি বিশ্বব্যাপী ১৩ কোটি ১০ লাখ ডলার আয় করেছে।

বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য সুখবর, ব· অফিসে প্রাণ ফেরানো ছবি দুটি মুক্তি পেয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্সে। ‘দ্য কনজ্যুরিং: দ্য ডেভিল মেইড মি ডু ইট’ হলো সিরিজের নতুন কিস্তি। ২০১৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দ্য কনজ্যুরিং’-এর পরিচালক জেমস ওয়ান এবারের পর্ব প্রযোজনা করেছেন। মাইকেল কেভসের পরিচালনায় এতে যথারীতি এড ওয়ারেন ও লরেন ওয়ারেন চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্যাট্রিক উইলসন ও ভেরা ফার্মিগা।

অন্যদিকে এমা স্টোনের ‘ক্রুয়েলা’ পরিচালনা করেছেন ক্রেগ গিলেস্পি। ছবির পটভূমি সত্তর দশকের লন্ডন। এতে এমা স্টোন একজন উঠতি ফ্যাশন ডিজাইনার। তার চরিত্রের নাম এস্টেলা। ফ্যাশন ব্যবসায় সাফল্য পেতে মরিয়া ও নির্দয় হয়ে ওঠে এই তরুণী। সাদা-কালো ডালমেশিয়ান কুকুরের চামড়া দিয়ে কোট বানাতে থাকে সে। পোষা প্রাণীদের দোকান থেকে শুধু ডালমেশিয়ান কুকুর কেনে এস্টেলা। ঘটনাক্রমে এক দম্পতির কুকুর ছানারা তার নজরে পড়ে। কিন্তু সেগুলোর মালিক তাদের বিক্রি করবে না। এ কারণে কুকুর ছানাগুলো চুরির পরিকল্পনা করে এস্টেলা। কুকুর ছানা ও তাদের মা-বাবার জীবনে সে বয়ে নিয়ে আসে ভয় আর আতঙ্ক।

হলিউড অভিনেত্রী গ্লেন ক্লোজ ১৯৯৬ সালে ‘হান্ড্রেড ওয়ান ডালমেশিয়ানস’ এবং ২০০০ সালে ‘হান্ড্রেড টু ডালমেশিয়ানস’ ক্রুয়েলা চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। তিনি এবারের ছবিতে নির্বাহী প্রযোজক হিসেবে কাজ করেছেন। আগের দুটি ছবির প্রিক্যুয়েল হিসেবে তৈরি হয়েছে ‘ক্রুয়েলা’। ১৯৫৬ সালে প্রকাশিত ডডি স্মিথের উপন্যাস ‘দ্য হান্ড্রেড অ্যান্ড ওয়ান ডালমেশিয়ানস’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে এগুলো।

ইত্তেফাক/জেএইচ/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x