কাঠগড়ায় কেমন ছিলেন পরীমণি?

কাঠগড়ায় কেমন ছিলেন পরীমণি?
আদালতে পরীমণি। ছবি: ফোকাস বাংলা

আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি, তার ব্যবস্থাপক আশরাফুল ইসলাম ওরফে দীপু, প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজ ও তার তার ব্যবস্থাপক মো. সবুজ আলীকে মাদক মামলায় চারদিন করে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) রাতে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মামুনুর রশীদ তাদের চারদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ৮টা ২৬ মিনিটে তাদের ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাতদিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে বিচারক তাদের চারদিন করে রিমান্ডের আদেশ দেন।

রাত ৮টা ২৫ মিনিটের দিকে পরীমণি ও রাজসহ চারজনকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে প্রবেশ করে পরীমণি তার কোনো এক স্বজনকে জড়িয়ে ধরেন। এরপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের দুজনকে আলাদা করে দিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।

এর কিছুক্ষণ পরে বিচারক এজলাসে আসেন এবং রিমান্ড ও জামিন শুনানি শুরু হয়। শুনানির শুরু থেকেই পরীমণি আদালতে নিশ্চুপ ছিলেন। তার চোখে মুখে হতাশার ভাব ছিল। কিন্তু তার সঙ্গী রাজকে স্বাভাবিক থাকতে দেখা গেছে। আদালতে রাজ তার আইনজীবী এবং বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছেন কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে। কিন্তু পরীমণি ছিলেন একদম আলাদা। তিনি সারাক্ষণ নিশ্চুপ ছিলেন।

শুনানি শেষ হয় রাত ৯টা ৮মিনিটে। শুনানি শেষে পরীমণিকে আদালতের এজলাস থেকে নিয়ে যাওয়া হয়। সূত্র জানায়, আদালতে ৪২ মিনিটের পুরোটাই চুপ ছিলেন পরীমণি।

এরআগে, বিকেলে পরীমণি, প্রযোজক নজরুল রাজসহ চারজনকে বনানী থানায় সোপর্দ করে র‌্যাব। পরে তাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়। একটি মামলায় শামসুন্নাহার স্মৃতি ওরফে স্মৃতি মণি ওরফে পরীমণি এবং তার ব্যবস্থাপক ও কথিত মামা আশরাফুল ইসলাম ওরফে দীপুকে আসামি করা হয়েছে। এই মামলাটি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে করা হয়েছে। আরেকটি মামলায় নজরুল রাজ ও তার ব্যবস্থাপক মো. সবুজ আলীকে আসামি করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার সুনির্দিষ্ট কিছু অভিযোগের ভিত্তিতে পরীমণির বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় বিভিন্ন মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়। এরপর প্রযোজক ও অভিনেতা নজরুল ইসলাম রাজের বাসা থেকেও বিপুল পরিমাণ মাদক, সিসার সরঞ্জাম ও বিকৃত যৌনাচরণের উপকরণ জব্দ করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার বিকালে র‌্যাব সদর দফতরে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x