ঢাকা রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
২৬ °সে


মিমি ভোটে জিতলে পুরস্কার পাবেন কর্মীরা

মিমি ভোটে জিতলে পুরস্কার পাবেন কর্মীরা
ছবি: সংগৃহীত

যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী। আর সেই মিমিই ভাঙড়ের তৃণমূল নেতাদের বিরোধ ভুলিয়ে দিয়েছেন। তাই কোন্দল ভুলে প্রার্থীকে নিয়েই এখন ব্যস্ত ভাঙড় তৃণমূল। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রার্থীকে বিপুল ভোটে জয়ী করতে মাঠে নেমেছেন ভাঙড়ের বিবদমান সব গোষ্ঠীর নেতা। দিনরাত এক করে এখন প্রার্থীকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করতে বুথ থেকে বিভিন্ন অঞ্চলে মিটিং করে চলেছেন তারা। প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে কে কার অঞ্চল থেকে বেশি লিড দিতে পারে, তা নিয়েও।

মাসখানেক পরেই নির্বাচন। ভাঙড়ে মূল লড়াই ঘাসফুল প্রার্থী অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী বনাম কাস্তে–হাতুড়ির প্রার্থী আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের।

ইতিমধ্যেই ভাঙড়ের ১৩টি অঞ্চলে প্রচার করে জনতার হৃদয় হরণ করার চেষ্টা করেছেন মিমি। প্রার্থীর হয়ে ভাঙড়ে প্রচার এসেছেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম। পাল্টা ভাঙড়ে কয়েকটি বিশেষ জায়গায় ঘুরে ভোটারদের মন জয় করতে চেষ্টা করেছেন বাম প্রার্থী বিকাশরঞ্জনও। যদিও এখনও সেভাবে ভাঙড়ে দেখা মেলেনি বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরার। গত লোকসভা ভোটে যাদবপুর কেন্দ্রে শুধুমাত্র ভাঙড় থেকেই ৬৫ হাজারের মতো ভোটে লিড পেয়েছিলেন তৃণমূল প্রার্থী।

আরো পড়ুন: ২৫ বছর আগেই সেফুকে ত্যাজ্য করে পরিবার

সম্প্রতি ভোজেরহাটের সভায় মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ভাঙড় থেকে ১ লক্ষ ভোটে জেতার কথা বলেন। প্রার্থী মিমিও ভাঙড়ের নেতাদের ওপর ভরসার কথা শোনান। তারপর থেকেই ভাঙড়ের বিবদমান সব গোষ্ঠীর নেতা ঐকবদ্ধ হয়ে কাজ শুরু করেছেন। দলীয় কর্মীদেরও উদ্বুদ্ধ করছেন। ভাঙড় ২ নম্বর ব্লকের ১০টি অঞ্চলে আরাবুল ইসলাম, নান্নু হোসেন, ওহিদুল ইসলাম, আবদুর রহিম, রেজ্জাক–পুত্র মোস্তাক আহমেদ এক হয়েছেন। একদা অশান্ত পোলেরহাট ২ নম্বর অঞ্চলের বিদ্যুৎ সাব–স্টেশন এলাকা–সহ শানপুকুর, চালতাবেড়িয়া, বেঁওতায় অঞ্চলভিত্তিক মিটিংও চলছে। কর্মীদের অভাব–অভিযোগ শুনে তাঁদের ঐকবদ্ধ হয়ে কাজ করার পরামর্শ দিচ্ছেন নেতারা।

অন্যদিকে, ভাঙড় ১ নম্বর ব্লকের ৩টি অঞ্চলে সকাল থেকে রাত বুথভিত্তিক মিটিং করছেন কাইজার আহমেদ। কাইজার জানান, গ্রামে গ্রামে ঘুরে মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করা হচ্ছে। এলাকায় যে পরিমাণ উন্নয়ন হয়েছে, তাতে বিরোধীরা একটিও ভোট পাবে না। জেলা পরিষদ সদস্য নান্নু হোসেন আবার দলীয় কর্মীদের পুরস্কার দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেছেন।’ তিনি বলেন, ‘‌ভাঙড়ের যে বুথ সবথেকে বেশি ভোটে লিড দেবে, সেই বুথের কর্মীদের পুরস্কৃত করব।’‌

ইত্তেফাক/বিএএফ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন