ঢাকা সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬
৩৪ °সে


'আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন' ধারাবাহিকে সোহানা সীমা

'আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন' ধারাবাহিকে সোহানা সীমা
'আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন' ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন সোহানা সীমা। ছবি: সংগৃহীত।

বাংলাদেশের একটি স্বনামধন্য শিল্পপতি পরিবারের তৃতীয় প্রজন্মের টানাপোড়নের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন’। এটিএন বাংলায় প্রতি রবিবার ও সোমবার রাত ১১টা ৩০ মিনিটে প্রচার হচ্ছে নাটকটি। এতে অভিনয় করেছেন সোহানা সীমা। নবম শ্রেণী থেকে শুরু করে আজ ১০ বছর ধরে ‘নাট্যচক্র’ থিয়েটারের সঙ্গে কাজ করছেন এই অভিনেত্রী।

স্বাধীন শাহর রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন দেবাশীষ বড়ুয়া দীপ। এতে আরো অভিনয় করেছেন অহনা, ইরফান সাজ্জাদ, তানভীর, শম্পা হাসনাই, আইরিন তানি, সানজিদা তন্ময়, মম, লিজা মিতু, মার্শাল, ডায়না প্রমুখ।

নাটকটি নিয়ে সোহানা সীমা বলেন, ধারাবাহিকটিতে আমার চরিত্রটি বেশ চ্যালেঞ্জিং। এখানে আমার চরিত্রের নাম রাইসা। পরিচালক দেবাশীষ বড়ুয়া দীপ দাদা আমাকে টানা ১৫ টিন অনুশীলন করিয়েছেন, কিভাবে কুটনামি করতে হয়, পরিবারে ঝগড়া বাঁধাতে হয় এসব। বাস্তব জীবনে সাধারণ মেয়ে হলেও নাটকে আমাকে ভিন্ন রুপে দেখবেন দর্শকরা। আশা করি বেশ ভালাই লাগবে আপনাদের।

নাটকে দেখা যাবে- উচ্চবৃত্ত এক যৌথ পরিবারের সকল ধরনের ব্যবস্যা এখনো যৌথই আছে। অনীক হাসান পরিবারের থার্ড জেনারেশানের প্রথম সন্তান। ঢাকার অদুরে পারিবারিক সম্পত্তিতে সে একটি শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলছে। সেই ব্যবসাতে তার পরিবারের সকলের অংশিদ্বারিত্ব আছে।

এক বছর আগে অনীক তার ভালবাসার মানুষ মায়াকে বিয়ে করে প্রোজেক্টের পাশে তাদের পারিবারিক রিসোর্টে থাকে। পরিবারের অনেকের অমতেই অনীক মায়াকে বিয়ে করেছিল। তাই মায়ার এখানে তেমন কেউ আসতো না। কিছুদিন আগে তার একমাত্র আপন দেবর হৃদয় কানাডা থেকে এখানে এসে উঠেছে।

মায়ার স্বপ্ন দেখতো তার সকল দেবর ননদার সবাই যোগাযোগ করুক, তার সাথেই থাকুক। কিন্তু অনীককে সে কোন ভাবেই রাজি করাতে পারছিল না। অবশেষে রাজি করিয়েছে। প্রথম বিবাহ বার্ষিকী সেলিব্রেট করার জন্য পার্টি থ্রো করে। অনীক ও মায়ার ভাই বোনরা এসে উপস্থিত হয় রির্সোটে। রাইসা অনীকের কাজিন। রাইসার সাথে অনীকের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অনীক রাইসাকে বিয়ে না করে মায়াকে বিয়ে করে।

আরও পড়ুনঃ ঢাকায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সুন্দরীদের ফাঁদ, রোগী সেজে চিকিৎসক অপহরণ

অনীকের বাঁধা উপেক্ষা করে মায়া রাইসাকেও আমন্ত্রণ জানায়। রাইসা এখানে এসেই মায়াকে হেনস্তা করার কাজে নেমে পড়ে। প্রথমাবস্থায় রাইসার চক্রান্ত গোপন থাকলেও একটি সময় এসে জানাজানি হয়ে যায়। রাইসা মায়াকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয় সে মায়াকে কোনভাবেই শান্তিতে থাকতে দিবে না। মায়াও রাইসার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে। এমনই পারিবারিক এ্যকশানধর্মী গল্প নিয়ে গড়ে উঠেছি নাটকটি।

ইত্তেফাক/টিএস

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন