ঢাকা শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
২৮ °সে

মন কেড়ে নেওয়া দক্ষিণ কোরিয়ার টিউলিপ ফুল উৎসব

মন কেড়ে নেওয়া দক্ষিণ কোরিয়ার টিউলিপ ফুল উৎসব
দক্ষিণ কোরিয়ার টিউলিপ ফুল উৎসব। ছবি: সংগৃহীত

ফুল মানুষকে সব সময় কাছে টানে। ভালোবাসা, পবিত্রতা ও সৌন্দর্যের প্রতীক হিসেবেও ব্যবহার করা হয়। আজ আমরা আপনাদের এমন একটি ফুল উৎসবের গল্প শোনাবো যেখানকার ছবি আপনাকে প্রাণ চঞ্চল করবেই।

দক্ষিণ কোরিয়ার টিউলিপ ফুলের মেলার গল্প বিশ্বের ভ্রমণ পিয়াসুদের সবারই জানা। যা ইতিমধ্যে ওয়ার্ল্ড সামিট সোসাইটি দ্বারা বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি টিউলিপ উৎসবের একটি হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

এপ্রিল মাসের ১৩ তারিখ থেকে মে মাসের ১২ তারিখ পর্যন্ত চলবে তেয়ান টিউলিপ ফুলের উৎসব। ছুংছন প্রদেশের দক্ষিণ উপকূলে তেয়ান সহরের কোথজি বীচে আয়োজন করা হয় এই টিউলিপ ফুলের উৎসব।

তেয়ান আন্তর্জাতিক টিউলিপ ফেস্টিভালে ৩০০ টি বিভিন্ন প্রজাতির ১.৫ মিলিয়নেরও বেশি ফুলের পাশাপাশি লুপিন, ফক্সগ্লাভ, কমল,প্যানসি ফুল,ডেফোডিল এবং বসন্তের উন্নত প্রজাতির ফুলের প্রদর্শন করা হয়।

ভ্রমণ পিয়াসু ও প্রকৃতি প্রেমী ভাইয়েরা যান্ত্রিক জীবন থেকে বেরিয়ে ছুটির দিনে কিংবা অবসরে ঘুরে আসতে পারেন বিশ্বের শীর্ষ পাঁচে থাকা তেয়ান টিউলিপ ফুলের উৎসবে ।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশীরা হাজারো ব্যস্ততার মধ্যেও একটু সময় পেলেই চেষ্টা করেন এই টিউলিপ ফুলের মেলায় ঢু মেরে আসতে। আর আমরা বন্ধুরা কখনোই এই মেলায় যাওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করি না। দক্ষিণ কোরিয়ার টিউলিপ ফুলের মেলা আমাকে খুবই টানে।

যতক্ষণ এই মেলায় থাকি মন থেকে হারিয়ে যায় তার সমস্ত ক্লান্তি। তাই তো প্রতিবারই অপেক্ষায় থাকি কখন শুরু হবে আমাদের এই প্রাণের ফুলের মেলা।

তবে প্রতিবারের চেয়ে এবারের মেলায় আনন্দটা যেন অনেকটাই হালকা হয়ে গেছে। অন্য বছর গুলোতে আমরা যখন যাই কয়েক কিলোমিটার শুধু বাসের সারি থাকে। মানুষের কোলাহলে মুগ্ধ থাকে মেলা প্রাঙ্গণ। বিভিন্ন দেশের লোকদের আনাগোনায় পূর্ণতা পায় টিউলিপ ফুল উৎসব।

কিন্তু এবার বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে টিউলিপ ফুল হারিয়েছে তার উষ্ণতা। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঘুরে বেড়াচ্ছেন দর্শনার্থীরা। করোনা ভাইরাসের কারণে শরীরের তাপমাত্রা চেক করছে এবং মাস্ক ছাড়া ভেতরে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।

এমন নীরবতার মধ্যেই এবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে টিউলিপ ফুলের ফেস্টিভ্যাল। সারি সারি বাস নেই, নেই মানুষের কোলাহল। তারপরও ফুলের সৌন্দর্য সব সময়ই মানুষকে কাছে টানে। সেই মেলাটি সমুদ্রের কোল ঘেঁষে হওয়ায় অনুভূতিটা সত্যিই অন্যরকম।

* প্রবেশ টিকিট: প্রাপ্তবয়স্কদের ১২,০০০ উওন /কিশোরদের ৯,০০০ উওন / প্রবীণ নাগরিক এবং গ্রুপ নিয়ে গেলে ১০,০০০ উওন।

যেভাবে যাবেন :

১* দোং সিওল বাস টার্মিনাল বা এক্সপ্রেস বাস টার্মিনাল থেকে তেয়ান আন্তঃ বাস টার্মিনাল (প্রায় ২.৫ঘন্টা)। ২* তেয়ান ইন্টারসিটি বাস টার্মিনাল থেকে লোকাল বাসে গোমসম(곰섬) এর অভিমুখে বাস ধরুন এবং মোরেনন বাস স্টপ এ গিয়ে নামুন (প্রায় ১ ঘণ্টা)।

লেখক, রাসেল মোল্লা দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী বাংলাদেশী।

ইত্তেফাক/এসআই

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
০৬ জুন, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন