সবুজের স্নিগ্ধতায়

সবুজের স্নিগ্ধতায়
ছবি: ইত্তেফাক

প্রকৃতি প্রেমিক না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। সবুজের ঘ্রাণ আমাদের সবাইকে কাছে টানে, আর একটু সবুজের ছোঁয়া পেলে মন স্নিগ্ধ হয়ে ওঠে। ইট পাথরের এই শহরে আমাদের প্রিয় ঘরটাকে নিজের মতো করে অনেকভাবেই সাজাতে পারি। বিভিন্ন ধরনের ইনডোর প্ল্যান্ট বা বাহারি ফুলের গাছ আমাদের ঘরটিকে করে তোলে আরও সুন্দর। ঘরের সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলতে ইনডোর প্ল্যান্টের নাম, পরিচর্যা নিয়ে লিখেছেন রফিকুল ইসলাম

যদি ইনডোর প্ল্যান্ট সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকে তাহলে ঘরের সৌন্দর্য বাড়াতে আমাদের সুবিধা হবে। ঘরে আমরা যে গাছ রাখতে পারি তার মধ্যে রয়েছে কয়েক রকমের পাতাবাহার, মানিপ্ল্যান্ট, ক্যাকটাস, বাঁশপাতা, ডের্জাট রোজ, থাই রোজ, কেবি রোজ, ডেসিরা, পাথরকুচি, কলকি লাভ ক্যাকটাস, বট বনসাই, ফাইসহ আরও অনেক গাছ। এ ছাড়াও আপনার বারান্দায় ঝুলাতে পারেন পাতাবাহার, অর্কিড, ঝুড়িলতা, মোকরা, একললিমাসহ আরও অনেক গাছ।

ইনডোর প্ল্যান্ট পেতে পারেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলের বিপরীতে, রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নার্সারিগুলোতে, ঢাকা কলেজের সামনের ফুটপাতে, বনানী ডিওএইচএসসহ রাজধানীর আরও কয়েকটি দোকানে।

ইনডোর প্ল্যান্ট কিনতে খুব বেশি বাজেট করতে হবে না। বিভিন্ন ধরনের ইনডোর প্ল্যান্ট ৫০ থেকে ১২০ টাকার মধ্যেই পাওয়া যাবে। তবে টবের ভিন্নতার ওপর গাছের দাম বাড়তে পারে। একটু বাহারি টব বা বাহারি টবসহ গাছ ৯০ থেকে ১৫০ টাকার মধ্যে আমরা কিনতে পারব।

ঘরের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে ইনডোর প্ল্যান্ট নির্বাচন করুন। সবুজের মাঝে আমাদের ভালোবাসার ঘরকে আরও সুন্দর করে তুলবে ইনডোর প্ল্যান্ট।

গাছ শুধু ঘরের ভেতর এনে রাখলেই হবে না, এর সঙ্গে অন্দরের সজ্জাটাও হতে হবে মানানসই। এখন সব আবাসিক অ্যাপার্টমেন্টের গ্রাউন্ড ফ্লোর বা নিচতলায় গাড়ির গ্যারেজ করা হয়। গ্যারেজেই ইনডোর প্ল্যান্টস দিয়ে করা যেতে পারে সুন্দর বাগান। গ্যারেজের চারদিকের দেয়ালের সামনে দুই থেকে তিন ফুট জায়গায় সিমেন্ট বা ইট দিয়ে নকশা করে সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ করে তার ভেতর মাটি ফেলে লাগাতে পারেন গাছ। বিভিন্ন আকৃতির মাটির টব, গাছের ডাল ও পাতায় মোড়ানো টব, দড়ির টবসহ নান্দনিক টবে লাগাতে পারেন গাছ। এতে পাথর, কলস ও কৃত্রিম ফুলও ব্যবহার করতে পারেন। একইভাবে সিঁড়িঘরের কোনায় লাগাতে পারেন ইনডোর প্ল্যান্টস।

বসার ঘরে গাছ রাখলে তার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ আসবাব থাকা চাই। এ জন্য বেতের সাদামাটা আসবাব ব্যবহার করলেও ভালো দেখাবে। টবের আকারে বৈচিত্র্য আনতে পারেন।

আর এর ওপর স্পটলাইট ফেলে করতে পারেন আলো-ছায়ার খেলা।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত