পূজায় ভিন্ন স্বাদ

পূজায় ভিন্ন স্বাদ
পূজায় ভিন্ন স্বাদ

স্বাদে ভিন্নতা আনার ইচ্ছে থাকে সব রাঁধুনির। বিশেষ করে উৎসব-পার্বণে এই ইচ্ছের জোর বেড়ে যায়। পূজা উপলক্ষে ভিন্নস্বাদের কয়েকটি রেসিপি দিয়েছেন অসিত কর্মকার সুজন

নারকেল গুড়ের সন্দেশ

উপকরণ :নারকেল বাটা ১/২ কাপ, ছানা ১ কাপ, গুড় ১/২ কাপ, ঘি ১ টেবিল চামচ, এলাচ গুঁড়া ১/২ চা চামচ।

প্রণালি :একটি প্যানে ঘি দিয়ে নারকেল বাটা ও গুড় দিয়ে নাড়ুন। গুড় গলে এলে ছানা দিয়ে ভালোভাবে নাড়তে থাকুন। আঠালো হয়ে এলে গুঁড়া দুধ ও এলাচ গুঁড়া দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নামিয়ে রাখুন। একটি ট্রেতে সামান্য ঘি ব্রাশ করে মিশ্রণটি বিছিয়ে ঠাণ্ডা করুন। ঠাণ্ডা হলে পছন্দমতো আকারে কেটে পরিবেশন করুন।

পনির দিয়ে লাউ বড়া

উপকরণ :লাউ ১টি, পুরের জন্য :পনির কুচি ৪ টেবিল চামচ, নারকেল বাটা ২ টেবিল চামচ, পোস্ত বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, হলুদ ১/২ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

ব্যাটারের জন্য :চালের গুঁড়া ১ কাপ, কালো জিরে ১/২ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১/২ চা চামচ, জিরা বাটা ১/৩ চা চামচ, আদা বাটা ১/২ চা চামচ, কর্ন ফ্লাওয়ার ১/২ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১/২ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১/২ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, পানি পরিমাণমতো, তেল ভাজার জন্য পরিমাণমতো।

প্রণালি :সব উপকরণ মিশিয়ে পুর তৈরি করে রাখুন। লাউয়ের খোসা ফেলে মাঝ বরাবর কেটে নিন। এক অংশকে আধা ইঞ্চি মোটা করে কেটে মাঝখানে পকেটের মতো করে নিন। প্যানে পানি গরম করে তাতে সামান্য লবণ দিয়ে পকেট করা লাউগুলো দুই মিনিট ভাপিয়ে নিন। এবার পানি ছেঁকে সুতির কাপড়ে বিছিয়ে রাখুন, যাতে পানি সম্পূর্ণ ঝরে যায়। ৩০ মিনিট পর পকেট করা লাউয়ের প্রতিটি টুকরোতে পুর ভরে চালের গুঁড়ার ব্যাটারে চুবিয়ে ডুবো তেলে ভেজে গরম ভাতের সঙ্গে ঘি দিয়ে পরিবেশন করুন।

সপ্তপদী খিচুড়ি

উপকরণ :নিরামিষ সবজির জন্য :আলু, পটল, কাকরোল, বরবটি, পেঁপে, বেগুন ও মিষ্টি কুমড়া প্রতিটি সবজি ১ কাপ করে, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা ১/২ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১/২ চা চামচ, পাঁচফোড়ন ১ চা চামচ, তেজপাতা ২টি, এলাচ ২টি, দারুচিনি ২টি, সরষে তেল ১/২ কাপ, গরম মসলা গুঁড়া ১/২ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো ও পানি পরিমাণমতো।

খিচুড়ির জন্য :পোলাও চাল ৫০০ গ্রাম, মুগ ডাল ভাজা ২৫০ গ্রাম, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, এলাচ ও দারচিনি ৪/৫ টুকরা, আদা বাটা ১ চা চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, সরষে তেল ১/২ কাপ, লবণ স্বাদমতো ও গরম পানি পরিমাণমতো।

প্রণালি :সবজিগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। প্যানে তেল দিন। এবার একে একে সব মসলা দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে সবজিগুলো দিন। সবজিগুলো নেড়ে সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে দিন। পানি শুকিয়ে এলে গরম মসলা গুঁড়া ছড়িয়ে নামিয়ে রাখুন। এবার চাল ও ডাল আলাদাভাবে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। প্যানে তেল দিয়ে দারচিনি, এলাচ ও তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে বাকি সব মসলা দিয়ে কষিয়ে চাল ও ডাল দিতে হবে। চাল ও ডাল ভাজা ভাজা হয়ে এলে গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। পানি শুকিয়ে এলে নামিয়ে দমে রাখুন। ১০/১৫ মিনিট পর আগে থেকে রান্না করে রাখা সবজিগুলো খিচুড়ির সঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে পরিবেশন করুন।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত