এই সময়ে ব্রাইডাল মেকআপ

এই সময়ে ব্রাইডাল মেকআপ
ছবি- ইত্তেফাক

বিয়ের প্রস্তুতি নেওয়ার ক্ষেত্রে একজন হবু কনের সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হলো— তাকে বিয়ের দিন দেখতে কেমন লাগবে, কেমন হবে তার লুক আর কে তাকে সাজাবে। এই সময়ে ব্রাইডাল মেকআপ নিয়ে এবারের আয়োজন।

বিয়ের দিন ব্রাইডাল মেকআপ সাজগোজের ক্ষেত্রে যেন কোনো ভুল না হয় সেটাই সব মেয়ে চায়। কোনো কনেই চায় না তার চোখের কাজল ধেবড়ে যাক বা ঠোঁটের লিপস্টিক খসখসে দেখাক। এই দুশ্চিন্তা দূর করতে এবং বিয়ের দিন যেন কোনো অসুবিধা না হয় সেই বিষয়ে ব্রাইডাল মেকআপের নানা টিপস উপস্থাপন করা হলো।

স্কিনকেয়ার রুটিন অনুসরণ করুন

বিয়ের দিন যাতে আপনার ত্বক উজ্জ্বল ও কোমল দেখায় তার জন্য আগে থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। আপনার মুখ হলো একটা সাদা ক্যানভাসের মতো। সেখানেই মেকআপ আর্টিস্ট তার জাদু ফুটিয়ে তুলবেন। সুতরাং এই ক্যানভাস সামলে রাখার দায়িত্ব আপনার। দেখে নিন কীভাবে নেবেন বিয়ের আগে ত্বকের যত্ন।

নিজের যত্ন নিন: আপনি যদি ভেবে থাকেন বিয়ের মাত্র এক সপ্তাহ আগে ত্বকের যত্ন নেওয়া যথেষ্ট তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। ছ’মাস আগে থেকে প্রস্তুতি নিন। ডার্মেটোলজিস্টের সঙ্গে অ্যাপয়েন্টমেন্ট করে তার সঙ্গে স্কিন কেয়ার রুটিন নিয়ে কথা বলুন। তারপর যেটা আপনার ত্বকের উপযোগী সেটা করুন।

প্রতিদিন এক্সফোলিয়েট করুন: এক্সফোলিয়েশন মানে হলো ত্বকের মৃত কোষ তুলে ফেলা। নিয়মিত এক্সফোলিয়েশন করলে মৃত কোষ দূর হবে এবং ত্বক উজ্জ্বল হবে। তবে মনে রাখবেন সপ্তাহে দু’তিন বারের বেশি এক্সফোলিয়েট করবেন না। কারণ বেশি এক্সফোলিয়েশন ত্বকের পক্ষে ক্ষতিকর।

সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন: সূর্যের রশ্মি আমাদের ত্বকের কতটা ক্ষতি করে সেটা সহজে বোঝা যায় না। এর প্রভাব ধীরে ধীরে বোঝা যায় যখন ত্বক নির্জীব ও দাগযুক্ত হয়ে পড়ে। তাই বাড়ি থেকে যখনই বের হবেন সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। এসপিএফ৩০ বা তার বেশি হলে ভালো হয়। শীতকালেও সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত্।

ভালো করে খাওয়া-দাওয়া করুন: আপনি যা খাবেন তার প্রভাব পড়বে আপনার ত্বকে। তাই বিয়ের আগে ভাজাপোড়া না খেয়ে ঘরোয়া খাবার খান। বেশি করে সবজি আর ফল খান। আর প্রতিদিন দু’লিটার করে পানি পান করতে ভুলবেন না।

এক্সারসাইজ করুন: এক্সারসাইজ আমাদের হেলদি লাইফস্টাইলের একটি অংশ। তাই সপ্তাহে অন্তত পাঁচবার আধ ঘণ্টা করে এক্সারসাইজ করুন। আপনি যত ঘাম ঝরাবেন আপনার শরীর থেকে তত টক্সিন বেরিয়ে যাবে।

বেস যেন পরিস্কার থাকে

মেকআপ শুরু করার আগে মুখে যত তেল ময়লা আছে সেগুলো পরিষ্কার করে নিন। মুখ ধুয়ে শুকনো করে মুছে সেখানে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। ড্রাই স্কিনে মেকআপ একদম বসে না তাই ত্বক আর্দ্র থাকা দরকার।

সঠিকভাবে প্রাইমার ব্যবহার করুন

ময়েশ্চারাইজার লাগানোর পরের পদক্ষেপ হলো প্রাইমার লাগানো। প্রাইমার আপনার মুখে ফাউনডেশান ও কনসিলারের জন্য একটা স্মুত (মাঝে মাঝে ওয়াটারপ্রুফ বেসও করে) বেস তৈরি করে, যে কারণে মেকআপ আপনার মুখে দীর্ঘস্থায়ী হয়। একজন কনে হিসেবে প্রত্যেকেই চায় তার মেকআপ ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা থাকুক তাই প্রাইমার ব্যবহার করা আবশ্যিক।

ফাউন্ডেশন ভালো করে ব্লেন্ড করুন

একজন হবু কনের জন্য গোল্ডেন রুল হলো কখনো এসপিএফযুক্ত ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন না। এতে আপনার মুখ বেশি চকচক করবে এবং ছবি বাজে ওঠবে। মুখের কেন্দ্র থেকে শুরু করে ফাউন্ডেশন বাইরের দিকে এবং ঘাড়, গলা ও কানে লাগান। আঙুল দিয়ে যদিও ফাউন্ডেশন লাগানো যায় তবু ভালো কাভারেজের জন্য স্পঞ্জ বা ব্রাশ ব্যবহার করুন।

কন্সিলার ব্যবহার করুন

কনসিলার শুধু মুখের খুঁত, দাগ, ছোপ, ব্রণ বা মেছতা ঢাকতেই কাজ দেয় না। এটি আপনার ত্বক উজ্জ্বলও করে। বাজারে এখন অনেক রঙের কন্সিলার পাওয়া যায় যা বিভিন্ন কাজের জন্য ব্যবহারযোগ্য। আপনি কি জানেন মুখের লাল ভাব ঢাকতে কাজে দেয় গ্রিন কন্সিলার। তাই সেটা ব্যবহার করুন।

লুজ পাউডার ব্যবহার করুন

মুখের মেকআপ যাতে ভালো করে বসে তার জন্য মিহি এবং লুজ পাউডার ব্যবহার করুন। চোখের তলায় ও জ’লাইনে পাউডার লাগিয়ে নিন। খানিকক্ষণ রেখে ব্রাশ দিয়ে মুছে দিন।

ডাইমেনশন আনতে কনটুরিং করুন

আমরা সবাই খোদাই করা, হাই চিকবোন, স্ট্রং জ’লাইন লুক খুব পছন্দ করি। কনটুরিংয়ের মাধ্যমে আপনি এইরকম লুক পেতে পারেন।গাল টেনে ভিতরে ঢুকিয়ে নিন, তারপর হেয়ারলাইন থেকে গালের মাঝ বরাবর পর্যন্ত ব্রোঞ্জার লাগান। গালের উঁচু অংশ ও জ’লাইনেও লাগান। ভালো করে ব্লেন্ড করে দিন।

ত্বকে আনুন গোলাপের আভা

বিয়ের দিন কনের গালে যেন থাকে গোলাপের আভা। আপনার খুশি মনের ছোঁয়া যেন বোঝা যায়। তার জন্য প্রয়োজন ব্লাশার। ব্লাশ পাউডার নিয়ে ব্রাশ দিয়ে গালের উঁচু অংশে চক্রাকার মোশানে লাগিয়ে নিন।

হীরের মতো উজ্জ্বল হয়ে ওঠুন

ঝকমকে ও ঝলমলে দেখাতে আপনাকে আপনার মুখের হাই পয়েন্টস যেমন চিকবোন, কপালের মাঝখানে, ভুরুর উপরে ও মাঝখান হাইলাইট করুন।

সবকিছু ঠিকঠাক গুছিয়ে নিন

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মেকআপ যাতে অতিরিক্ত চকচক না করে তার জন্য বেস মেকআপে কম্প্যাক্ট পাউডার লাগিয়ে নিন। ট্রান্সলুসেন্ট পাউডার লাগালে ছবি ভালো ওঠে না, তাই আপনার স্কিন টোনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে পাউডার বেছে নিন।

মডেল: আঁচল

পোশাক ও মেকআপ: সোনিয়া অ্যান্ড তানিয়া বিউটি পার্লার

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত