প্রিয়জনের করোনা সংক্রমণে পাশে থাকুন  

প্রিয়জনের করোনা সংক্রমণে পাশে থাকুন  
ছবি : সংগৃহীত

নানান বিধিনিষেধ ও স্বাস্থ্যবিধি মানার পরেও করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন অনেকেই। কারো কোভিড হয়েছে শুনলেই অধিকাংশ মানুষ দূরে থাকতে চান। যেনো ফোনে খোঁজখবর নিলেও এই অদৃশ্য রোগ ছুঁয়ে দিবে! অথচ এ সময়টাতে তাদের পাশে থাকা বেশি প্রয়োজন। আপনি চাইলেই আপনার প্রিয় বন্ধু বা নিকট কোনো আত্মীয়ের জন্য দূর থেকেও অনেক কিছু করতে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক এ সময়ে কী করণীয়-

১.তথ্য প্রযুক্তির এ সময়টাতে বাড়ি গিয়ে সশরীরে খোঁজখবর নিতে হয়না, ফোনে বা ভিডিও কলে প্রিয়জনের কোভিড সংক্রমণের অবস্থা সম্পর্কে জানা সম্ভব। কেমন করে, কী করে হলো, কতোটা চিন্তায় পড়ে গেছেন-এসব জানতে চাইবেন না। মানুষ নিভৃতবাসে থাকতে থাকতে হাঁপিয়ে ওঠে। তাই তাদের সাথে গল্প করার চেষ্টা করুন। তবে, কেউ যদি বেশি অসুস্থ বা ক্লান্তি বোধ করে, তাহলে অল্প কথায় ফোন শেষ করে দিলেই ভালো।

২.সবসময় ভরসা দিন যে আপনি সঙ্গে আছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোভিড নিয়ে অনেক বানোয়াট তথ্য প্রচার হয়, সেগুলো পড়ে যেনো আপনার বন্ধু বা আত্মীয় বিচলিত না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। তাকে সত্য তথ্য দিন। রোগী সুস্থ বোধ করলে দু’জনে অনলাইনে কোনো ভিডিও গেম বা অন্য কোনো খেলা খেলতে পারেন। নেটফ্লিক্স বা প্রাইমে দু’জনের পছন্দ এমন কোনো সিরিজি দেখতে পারেন। আসলে এগুলো আপনার কাছে মামুলি বা সাধারণ বিষয় মনে হলেও আপনার কোভিড আক্রান্ত বন্ধু এতে আনন্দে থাকবেন, একাকিত্বে ভুগবেন না।

৩.নিত্য প্রয়োজনীয় বাজার সদাই, ফল, ওষুধপত্র-এসব কিনে দিতে পারেন। অনলাইনেও অর্ডার করে দিতে পারেন। পরিচিত কোনো স্বেচ্ছাসেবী দল যদি ওষুধ সরবারহ করে দিতে পারে তাহলে তাদের সাথেও যোগাযোগ করিয়ে দিতে পারেন। এতে আপনার বন্ধু বা প্রিয়জন অনেকটাই স্বস্তি পাবে।

৪.অসুস্থতা নিয়ে রান্না করা কঠিন। আপনি রান্না করে পৌঁছে দিতে পারেন। কিংবা অনলাইনে খাবার অর্ডার করে দিন এবং আপনি দায়িত্ব নিয়ে সবটুকু করে দিন। শুধু এখানে এটা আছে-ওখানে ওটা আছে এমন ফোন নম্বর এসএমএস করে রোগীর ইনবক্স ভরিয়ে তুলবেন না।

৫.লকডাউনে অনেকেই বেকার হয়ে পড়েছেন। তাই আর্থিক সঙ্কট অস্বাভাবিক কিছু নয়। তার উপর অসুস্থ হলে চিকিৎসার খরচ চালানো বাড়তি দুশ্চিন্তা। খুব কাছের বন্ধু হলে সরাসরি জিজ্ঞেস করুন প্রয়োজন আছে কিনা। যদি অস্বস্তি বোধ করেন তাহলে ওষুধ, ফল, বাজারসদাই, দুধ কিনে পাঠাতে পারেন।

৬.একটা বিষয় খুব গুরুত্বপূর্ণ কোভিড আক্রান্ত কাউকে আগ বাড়িয়ে এই ওষুধ খাও বলতে যাবেন না। ডাক্তারের পরামর্শ না নিয়ে কোনো রকম চিকিৎসা শুরু করা উচিত নয়। তাই কেউ অসুস্থ হলে নিজে থেকে ওষুধের তালিকা না পাঠিয়ে, কোন কোন চিকিৎসকের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা যেতে পারে, সেই তালিকা পাঠান।

ইত্তেফাক/আরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x