ঈদে বাসন-কোসনের যত্ন

ঈদে বাসন-কোসনের যত্ন
ছবি: রজত রায়

ঈদে প্রত্যেকবার অতিথি খাওয়ানোর পরই রান্নাঘরে জমবে ময়লা বাসন-কোসনের স্তুপ। সে সময়টাতে বাড়ির মা-বোনদের দম ফেলার ফুরসত থাকে না। এই তাড়াহুড়োর মধ্যেও বাসন-কোসনের যত্নের কথা মাথায় রাখতে হবে। পাশাপাশি এটাও মনে রাখতে হবে যে, বিভিন্ন ম্যাটারিয়ালের ক্রোকারিজের যত্নের জন্য ভিন্ন ভিন্ন উপায় রয়েছে।

ধোয়ার আগে প্লেট ভিজিয়ে নিন

সিংকের পানি যেনো নোংরা না হয় সে জন্য আগেভাগেই ক্রোকারিজ ও ডিশে লেগে থাকা ময়লা সরিয়ে ফেলতে হবে। তারপর সিংকে ধোয়ার জন্য ব্যবহৃত ক্রোকারিজ সাজিয়ে রেখে তার ওপর পানি ছিটিয়ে দিতে হবে অথবা সিংকে খানিকটা পানি জমিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে। কারণ শুকনো খাদ্যকণা, চর্বি বা ঝোল সহজে উঠতে চায় না।

প্রয়োজনে গরম পানি ব্যবহার করুন

নোংরা বাসন পরিষ্কারের জন্য নির্দিষ্ট তাপমাত্রার পানি প্রয়োজন। যদি খুব চর্বিযুক্ত ক্রোকারিজ ধোয়ার দরকার হয়, তবে পানির তাপমাত্রা দরকার ৩০ থেকে ১০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সেক্ষেত্রে হাত তেতে উঠলে রাবার গ্লাভস ব্যবহার করা যেতে পারে। গরম পানির ব্যবহার করলে তেল, ময়লা, চর্বি সহজে উঠে যায়। পাশাপাশি বাসন-কোসন সহজে স্থায়ী দাগ পড়ার আশঙ্কা থাকে না। শুধু তাই নয়, গরম পানিতে ক্ষতিকর জীবাণু ধ্বংস হয় দ্রুত।

বেশি ময়লা হলে যা করবেন

হাঁড়ি-পাতিল পরিষ্কার করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন স্টিলের উল। এতে ময়লা সহজে ঘষে তোলা সম্ভব হবে। তবে অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি হাঁড়ি-পাতিল, সসপ্যান ননস্টিক প্যান ধোয়ার সময় স্টিলের উল ব্যবহার করবেন না। স্পঞ্জ বা স্ক্রাবার দিয়ে কোমলভাবে ময়লা পরিষ্কার করে গরম পানিতে ধুয়ে নিন। এছাড়া ডিশ ওয়াশিং লিক্যুইডও ব্যবহার করা যেতে পারে।

ছাই বা সাধারণ সাবান ব্যবহার করবেন না

ময়লা বাসন-কোসন ধোয়ার সময় কখনই ছাই বা সাধারণ সাবান ব্যবহার না করে বাজারে পাওয়া যাওয়া তরল পরিষ্কারক ব্যবহার করুন কিংবা ডিসওয়াস বার। ধোয়ার পরপরই বাসন আলমারিতে উঠিয়ে না রেখে বরং কিছুক্ষণের জন্য কোথাও একটার উপর আরেকটা উপুড় করে রেখে দিন। এতে বাসনে লেগে থাকা পানি ঝরে যাবে।

সুতি কাপড় দিয়ে মুছে নিন

পানি সম্পূর্ণ ঝরে গেলে একটি সুতি ন্যাকড়া কাপড় দিয়ে ভালোভাবে মুছে উঠিয়ে রাখুন। বাসনে দুই বা এক ফোঁটা পানি লেগে থাকলেও সেটার দাগ বাসনে ফুটে থাকবে। তাই তুলে রাখার আগে অবশ্যই মুছে নিন।

সিরামিকের জন্য ডিসওয়াস বার বা লিক্যুইড সোপ

সিরামিকের বাসনের ক্ষেত্রে খুব ভালোমতো ডিসওয়াস বার কিংবা তরল পরিষ্কারক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। কোনোভাবে যদি তেল-চর্বির হলদে দাগ থেকে যায়, তাহলে পরে এই দাগ উঠাতে বেশ বেগ পেতে হবে। স্টিলের বাসন-কোসনের বেলাতেও ভেজা বাসন আগে শুকিয়ে নিয়ে তারপর মুছে নিন।

চামচের যত্নআত্তি

খাওয়ার পর চামচ সঙ্গে সঙ্গে হালকা গরম পানিতে লিক্যুইড সাবান মিশিয়ে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। এরপর শুকনো নরম কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। অনেকে শখ করে সিলভার বা গোল্ডেন কাটলারি কিনে তুলে রাখেন। দীর্ঘদিন ব্যবহার না করে ফেলে রাখলে রঙ নষ্ট হয়ে যায়। তাই মাঝে মধ্যে পলিশ করালে অনেকদিন ভালো থাকবে।সিলভারের কাটলারি খোলা জায়গায় রাখবেন না। এর রঙ কালো হয়ে যেতে পারে। কাটলারি ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। কারণ খাবারে ব্যবহার করা লবণ, ভিনেগার ইত্যাদি কাটালারি ড্যামেজ করে দিতে পারে। আর কাটলারিতে কখনো স্টিলের মাজুনি ব্যবহার করবেন না। দাগ বসে গিয়ে এর চাকচিক্য নষ্ট হয়ে যাবে।

ইত্তেফাক/আরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x